কলম্বাস, ভাস্কো ডা-গামাকে পথ দেখিয়েছিলেন যে মুসলিম ভূগোলবিদ

প্রকাশিত: ৮:৩৬ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১৯, ২০২২

কামরুল হাসান আকাশ । ।

আল ইদ্রিসী’র সম্পুর্ণ নাম আবু আবদুল্লাহ মুহাম্মাদ আল-ইদ্রীসি আল কুরতুবী আল হাসানী আস সাবিত। সাধারণত তিনি আল ইদ্রিসী নামেই বেশী পরিচিত। আল ইদ্রিসী জন্মেছিলেন বর্তমান স্পেনের সেউটা অঞ্চলে ১১০০ খ্রিস্টাব্দে। তিনি ১১৬৫ খ্রিস্টাব্দে সেউটা অঞ্চলেই মৃত্যুবরন করেন। আল ইদ্রিসী সম্পর্কে যতটুকু জানা যায়, স্পেনের অধিবাসী হলেও তিনি ছিলেন আরবী ভাষায় দক্ষ। একাধারে তিনি ছিলেন মুসলিম ভূগোলবিদ, মানচিত্র-অঙ্কনবিদ এবং মিশর বিশেষজ্ঞ। রাজা ২য় রজার (১১৩০-১১৫৪) এর শাসনামলে তিনি সিসিলি’র পালার্মোতে বসবাস করতেন। আল ইদ্রিসী’র বংশের লোকেরা ছিলেন স্পেনের মালাগা অঞ্চলের শাসক।

আল ইদ্রিসী পড়াশোনা করেন স্পেনের কর্ডোবার বিশ্ববিদ্যালয়ে। ১১৩৮ সালে তিনি সদ্য ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত রাজা ২য় রজারের আমন্ত্রনে সিসিলি উদ্দেশ্য যাত্রা করেন। রাজা ২য় রজারের অনুপ্রেরণায় তিনি মানচিত্র তৈরী করেন। একজন সফল মানচিত্রবিদ হিসেবে দ্বাদশ শতাব্দীতে প্রথম পৃথিবীর পূর্ণাঙ্গ মানচিত্র প্রনয়ণ করেন। উত্তর আমেরিকা’র আবিষ্কারক ক্রিস্টোফার কলম্বাস (১৪৫১-১৫২৬) এবং ইউরোপ থেকে ভারত আসার নৌপথ আবিষ্কারক পর্তুগিজ নাবিক ভাস্কো ডা-গামা (১৪৬০-১৫২৪), যে মানচিত্র নিয়ে বিশ্ব আবিষ্কারে বেরিয়েছিলেন। সেই মানচিত্রটিও ছিলো আল ইদ্রিসী’র আঁকা। তখন তার আঁকা মানচিত্র অনুযায়ী দক্ষিণমেরু ছিলো পৃথিবীর উপরিভাগ এবং উত্তরমেরু ছিলো পৃথিবীর নিম্নভাগ। পরবর্তীকালে তার অঙ্কিত পৃথিবীর মানচিত্র শুধুমাত্র কিছু পরিবর্তন করা হয়েছে। যার ফলে আমরা বর্তমান বিশ্বের মানচিত্রে দেখতে পাই, দক্ষিণমেরু পৃথিবীর উপরিভাগের বদলে নিম্নভাগে এবং উত্তরমেরু পৃথিবীর নিম্নভাগের বদলে উপরিভাগে অবস্থিত। ইউরোপীয়রা নতুনরুপে বিশ্ব মানচিত্র প্রনয়ণের পূর্ব পর্যন্ত দীর্ঘ প্রায় ৬ শতাব্দী যাবত, আল ইদ্রিসী অঙ্কিত মানচিত্রই ছিলো তৎকালীন বিশ্বের একমাত্র নির্ভরযোগ্য পথপ্রদর্শক। আল ইদ্রিসীর মানচিত্র অনুসরণ করেই মুসলমানরা ১১৭৮ সালে পৃথিবীর চতুর্থ বৃহত্তম মহাদেশ “দক্ষিণ আমেরিকা” আবিষ্কার করে। আয়তনের দিকে থেকে এশিয়া, আফ্রিকা ও উত্তর আমেরিকার পরেই যার স্থান।

 

Loading