ফ্লাইওভার থেকে ৩ সন্তানকে ফেলে দিয়ে বাবার আত্মহত্যা

প্রকাশিত: ১১:১৬ পূর্বাহ্ণ , আগস্ট ৪, ২০২২
Three of the four died from the fall. A fourth person survived the initial fall as of press time and was sent to the Selayang Hospital for treatment.

মালেশিয়ায় তিন শিশু সন্তানকে ২০ মিটার উঁচু ফ্লাইওভার থেকে ছুঁড়ে ফেলার পর সেখান থেকে নিজেও ঝাঁপ দেন পিতা। এই ঘটনায় দুই শিশুসহ পিতার মৃত্যু হলেও বেঁচে যায় পাঁচ বছর বয়সী আরেক শিশু।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) মালয়েশিয়ার কেপং এলাকার এমআরআর ২ হাইওয়ের নীচে দেশা জয়া ট্রাফিক লাইটের কাছে হাইওয়ে এলাকায় এই আত্মহত্যার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই ব্যক্তি ছাড়াও নিহত হয়েছে তার ৮ বছর বয়সী মেয়ে ও ছয় থেকে সাত বছর বয়সী ছেলে।

নিহতরা সবাই মিয়ানমারের নাগরিক বলে জানা গেছে।

গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, এক সন্তানকে কোলে করে ফ্লাইওভারে হেঁটে যান ওই ব্যক্তি। তখন অন্য দুই সন্তান ওই ব্যক্তির সঙ্গে হেঁটে যাচ্ছিল। তিন সন্তানকে ছুঁড়ে ফেলে দেওয়ার কিছুক্ষণ পর ঝাঁপ দেন ওই ব্যক্তিও। ওই জায়গার উচ্চতা ছিল ২০ মিটার।

সেন্টুল জেলার পুলিশ প্রধান সহকারী কমিশনার বেহ ইং লাই বলেন, “ ঘটনায় মৃত বাবা ও মেয়ের কাছে তাদের ইউনাইটেড নেশনস হাই কমিশন ফর রিফিউজিস (ইউএনএইচসিআর) কার্ড পাওয়া গেছে।”

তিনি আরও জানান, সমস্ত মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কুয়ালালামপুর হাসপাতালের (এইচকেএল) ফরেনসিক ইউনিটে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। দণ্ডবিধির ৩০২ ধারার অধীনে মামলাটি তদন্ত করা হচ্ছে।

তবে এখনও শিশুদের মাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি বলেও জানান তিনি।

অন্যদিকে, বেঁচে যাওয়া শিশুটি গুরুত্বর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। হাসপাতাল সেলেয়াংয়ের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

সূত্রঃ দ্য স্টার, এমএসএন