তৃণমূল নেতাকর্মীরাই আ. লীগকে ধরে রেখেছে

প্রকাশিত: ৫:৫৫ অপরাহ্ণ , জুলাই ৪, ২০২২

আওয়ামী লীগের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা সবসময়ই সঠিক সিদ্ধান্ত নেয় এবং তারাই দলটিকে ধরে রেখেছে। এ কথা ভুলে গেলে চলবে না বলে জানান আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার (৪ জুলাই) গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।তিনি বলেন, দেশের উন্নয়নে প্রত্যেকটি কাজ অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে করে যাচ্ছি বলেই, আজ দেশের মানুষ ভালো আছে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনায় অনেক উন্নত দেশ, যাদের অনেক টাকা; তারাও তো বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিতে পারেনি। কিন্তু বাংলাদেশে আমরা বিনামূল্যে ভ্যাকসিন দিয়েছি। সবাই একযোগে কাজ করছি বলেই করোনা-বন্যাসহ যে কোনো পরিস্থিতি আমরা মোকাবিলা করতে পারছি।

অন্যকোনো শক্তি নয়, মানুষের শক্তিই আমার কাছে বড় শক্তি বলে জানান শেখ হাসিনা।

এর আগে সকালে রাজধানীর গণভবন থেকে সড়কপথে রওনা দিয়ে পদ্মা সেতু হয়ে সাড়ে তিন ঘণ্টায় সপরিবারে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় পৌঁছান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তার সফরসঙ্গী হিসেবে ছিলেন সজীব ওয়াজেদ জয় এবং সায়মা ওয়াজেদ পুতুল।
সকাল পৌনে ৯টায় পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে টোল পরিশোধ করেন প্রধানমন্ত্রী। এরপরই তার গাড়িবহর সেতুতে উঠে যায়। প্রধানমন্ত্রীর প্রেস উইংয়ের এক কর্মকর্তা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

ওই কর্মকর্তা জানান, সকাল পৌনে ৯টার দিকে পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্তে টোল পরিশোধ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এরপরই তার গাড়িবহর সেতুতে উঠে যায়।

মূল সেতুতে উঠার পর সজীব ওয়াজেদ জয় ও সায়মা ওয়াজেদ পুতুলকে নিয়ে কিছু সময়ের জন্য গাড়ি থেকে নামেন প্রধানমন্ত্রী। এরপর সেতু পার হয়ে জাজিরা প্রান্তেও থেমে কিছু সময় অতিবাহিত করেছে প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর। এরইমধ্যে কোনো এক সময়ে মা ও ভাইকে নিয়ে সেলফি তোলেন সায়মা ওয়াজেদ পুতুল।

শেখ হাসিনা টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন এবং ফাতেহা পাঠ ও বিশেষ মোনাজাত করেন। পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সফর শেষে রাতেই তিনি ঢাকায় ফিরবেন।

গত ২৫ জুন দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২১ জেলার স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বহুল প্রতীক্ষিত পদ্মা বহুমুখী সেতুটি যান চলাচলের জন্য খুলে দেয়ার পর প্রথম টোল দিয়ে সেতু পার হন তিনি। সেতু উদ্বোধনের পর টুঙ্গিপাড়ায় এটিই তার প্রথম সফর।

প্রধানমন্ত্রীর আগমনকে কেন্দ্র করে টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধ ও আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করা হয়।সময় সংবাদ