অস্ট্রেলিয়া-সিঙ্গাপুরে সোমবার ঈদ

প্রকাশিত: ৯:৪২ অপরাহ্ণ , এপ্রিল ৩০, ২০২২

একমাস সিয়াম সাধনা শেষে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপনের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে মুসলিম বিশ্ব। সৌদি আরব কিংবা সংযুক্ত আরব আমিরাতের মতো মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে থেকে চাঁদ দেখার খবর এখন পর্যন্ত পাওয়া না গেলেও এরই মধ্যে ঈদের দিন ঘোষণা করেছে অস্ট্রেলিয়া ও সিঙ্গাপুর। আগামী সোমবার (২ মে) দেশ দুটিতে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে। গালফ নিউজ শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

এশিয়ার মধ্যে সবার আগে ঈদুল ফিতরের দিন ঘোষণা করেছে সিঙ্গাপুর। দেশটির মজলিস উগামা ইসলাম বা ইসলামী ধর্মীয় পরিষদ (এমইউআইএস) জানিয়েছে, সিঙ্গাপুরবাসী আগামী সোমবার (২ মে) ঈদ উদযাপন করবে।

অস্ট্রেলিয়ার ন্যাশনাল ইমাম কাউন্সিল ঈদুল ফিতর উপলক্ষে একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, দেশটিতে রমজানের মাসের শেষ দিন হবে আগামী রোববার (১ মে) এবং শাওয়াল মাসের প্রথম দিন, অর্থাৎ ঈদুল ফিতর উদযাপিত হবে আগামী সোমবার (২ মে)।

এদিকে, সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে শনিবার শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখতে পাওয়ার কোনো সম্ভাবনা নেই বলে জানিয়েছে আবুধাবি-ভিত্তিক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল অ্যাস্ট্রোনমিক্যাল সেন্টার (আইএসি)।

অর্থাৎ ওই অঞ্চলে রোববার রমজান মাসের ৩০ দিন পূরণ হবে এবং এর পরের দিন তথা ২ মে উদযাপিত হবে ঈদুল ফিতর।

আইএসির বিবৃতির বরাতে গালফ নিউজ এ তথ্য জানিয়েছে।

শনিবার সকালে আইএসি জানিয়েছে, তারা রমজানের শেষদিকের অতিসরু চাঁদটি কোনোমতে চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়েছে। যার অর্থ আজ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলো থেকে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা অসম্ভব হতে পারে।

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে এ বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতে রোজা পালন শুরু হয়েছিল গত ২ এপ্রিল। সৌদিতে চাঁদ দেখার খবর সামনে আসার পরপরই ওইদিন থেকে রোজা পালনের ঘোষণা দেয় প্রতিবেশী দেশটি।

আর চাঁদ দেখার সাপেক্ষে ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, ভারত, ব্রুনাই, বাংলাদেশ, পাকিস্তান, ইরান, ওমান, জর্ডান, মরক্কো এবং ঘানাসহ বেশ কয়েকটি দেশে রোজা পালন শুরু হয়েছে ৩ এপ্রিল থেকে।

সৌদি আরবের চাঁদ দেখা না দেখার বিষয়টি বাংলাদেশের জন্য বেশ আগ্রহের। সাধারণত সৌদি আরবের পর দিনই বাংলাদেশ-ভারতে ঈদ পালিত হয়ে থাকে।

Loading