ইসরায়েলে কোভিডের নতুন ধরন শনাক্ত

প্রকাশিত: ১১:০১ পূর্বাহ্ণ , মার্চ ১৮, ২০২২

১৭ মার্চ ২০২২ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস ২০২২ উপলক্ষে সীতাকুণ্ড তাহের-মনজুর কলেজে নানা অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়। আয়োজিত অইসরায়েলে দুই ব্যক্তির দেহে করোনাভাইরাসের নতুন ধরন শনাক্ত করা হয়েছে। তবে ধরনটি নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনো কারণ নেই।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ইসরায়েলে বেন গুরিয়ান বিমানবন্দরে পৌঁছানো দুই ব্যক্তির করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হলে তাদের দেহে ভাইরাসটির নতুন ধরন শনাক্ত হয়। করোনা ভাইরাসের সবচেয়ে সংক্রামক ধরন ওমিক্রনের বিএ.১ ও বিএ.২ উপধরনের সমন্বয়ে নতুন ধরনটি গঠিত।

ইসরায়েলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নতুন ধরনটি বিশ্বে এখনো অজানা। অন্যান্য ধরনের ক্ষেত্রে যে চিকিৎসা এই ধরনের ক্ষেত্রে চিকিৎসা একই রকম। নতুন এই ধরনের কারণে শরীরে যেসব লক্ষণ দেখা দেয় সেগুলো হলো—হালকা জ্বর, মাথাব্যথা এবং পেশীতে ব্যথা।

ইসরাইলের কোভিড রেসপন্স বিভাগের প্রধান সালমান জারকা বলেন, “এই মুহূর্তে আমরা নতুন এই ধরন নিয়ে উদ্বিগ্ন নই।”

ইসরায়েলের ৪০ লাখ মানুষ এরই মধ্যে তিন ডোজ টিকা পেয়েছে। করোনা পজিটিভ শনাক্তের সংখ্যা প্রায় ১৪ লাখ। দেশটিতে করোনায় মারা গেছে আট হাজার ২৪৪ জন।

এদিকে ডব্লিউএইচও বলছে, গত সপ্তাহের তুলনায় বিশ্বে নতুন সংক্রমণের হার বেড়েছে শতকরা ৮ ভাগ। গত ৭ মার্চ থেকে ১৩ মার্চ পর্যন্ত নতুন করে শনাক্ত প্রায় ১ কোটি ১০ লাখ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৪৩ হাজার জনের। এ হার সবচেয়ে দ্রুত বাড়ছে পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে। যার মধ্যে রয়েছে দক্ষিণ কোরিয়া এবং চীন। এ দুটি দেশে নতুন করে শনাক্তের হার বেড়ে ২৫ শতাংশ হয়েছে এবং মৃত্যু বেড়েছে শতকরা ২৭ ভাগ। এ বছর জানুয়ারির পর এই পরিমাণ বৃদ্ধি এটিই প্রথম।
সূত্র: এএফপিনুষ্ঠানসমূহের মধ্যে ছিল জাতীয় পতাকা উত্তোলন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন, শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে চিত্রাংকন ও রচনা প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা এবং বিশেষ মোনাজাত।
আজ ১৭ মার্চ (বৃহস্পতিবার) সকাল ১১টায় কলেজের অডিটোরিয়ামে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জীবন ও কর্ম নিয়ে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খান।
কলেজের সমাজবিজ্ঞান বিষয়ের প্রভাষক মুহাম্মদ আলাউদ্দিনের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং বিষয়ের প্রভাষক এ.কে.এম শাহনাওয়াজ, হিসাব বিজ্ঞান বিষয়ের প্রভাষক মোঃ নুরুছাপা, পৌরনীতি ও সুশাসন বিষয়ের প্রভাষক তন্ময় আচার্য্য, পদার্থবিজ্ঞান বিষয়ের প্রভাষক মোঃ নাসরাতুল হোসাইন ও ইংরজী বিষয়ের প্রভাষক আজম উদ্দীন। সৈয়দ শামসুল হক রচিত ‘আমার পরিচয়’ শিরোনামের কবিতাটি পাঠ করেন বাংলা বিষয়ের প্রভাষক মিনু রাণী মিত্র।
আলোচনা সভার পরে রচনা প্রতিয়োগিতায় উত্তীর্ণ কৃতি শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান, সানজিদা আক্তার পামিয়া, প্রমি চৌধুরী এবং চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় উত্তীর্ণ কৃতি শিক্ষার্থী আঁখি রানী দেবী, জান্নাতুল তাজরিন প্রিয়া ও প্রমি চৌধুরীর হাতে পুরস্কার তুলে দেন অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খান।
অনুষ্ঠানে কুরআন থেকে তেলাওয়াত করেন মোঃ ছালাউদ্দীন। গীতা পাঠ করেন পূজা সাহা।
সভাপতির তাঁর বক্তব্যে বলেন বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। বঙ্গবন্ধু মানেই আজীবন সংগ্রাম এবং বাংলাদেশের স্বাধীনতা। তিনি আজীবন জীবনের ঝুঁকি নিয়েছেন। অধিকার হারা মানুষের অধিকার আদায়ে আন্দোলন সংগ্রাম করায় জীবনের বড় অংশ জুড়ে জেলখানায় ছিলেন তিনি। তাই তিনি কেবল বাংলা নয়, সারা বিশ্বের অবিসংবাদিত নেতা।

Loading