আমি নিশ্চিত, পুতিন হামলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন: বাইডেন

প্রকাশিত: ১১:৫৯ পূর্বাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০২২

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনে হামলা চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এমন কি যে কোন সময় আক্রমণ হতে পারে বলেও নিশ্চয়তা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

শনিবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।বাইডেন বলেছেন, “মার্কিন গোয়েন্দা তথ্যের ওপর ভিত্তি করে এমন ধারণা করা হচ্ছে। সেখানে বলা হয়েছে, রাজধানী কিয়েভকে লক্ষ্যবস্তু করা হবে।” তবে আক্রমণের পরিকল্পনার কথা অস্বীকার করেছে রাশিয়া।

পশ্চিমা দেশগুলোর আশঙ্কা, রাশিয়া আক্রমণ শুরুর একটি কারণ খুঁজতে ইউক্রেনের বিচ্ছিন্ন পূর্বাঞ্চলে একটি মিথ্যা সংকট তৈরির চেষ্টা করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের অনুমান ‘ইউক্রেনের মধ্যে এবং কাছাকাছি অঞ্চলে’ ১ লাখ ৬৯ হাজার থেকে ১ লাখ ৯০ হাজার রুশ সেনা আছে। এরমধ্যে পূর্ব ইউক্রেনের ডোনেস্ক এবং লুহানস্কের স্বঘোষিত প্রজাতন্ত্রগুলোতে রুশ সমর্থিত যোদ্ধারাও অন্তর্ভুক্ত।

হোয়াইট হাউসে এক টেলিভিশন ভাষণে বাইডেন বলেন, “যুক্তরাষ্ট্রের বিশ্বাস করার কারণ আছে যে, রুশ বাহিনী আগামী সপ্তাহে, আগামী দিনে ইউক্রেনে আক্রমণের পরিকল্পনা এবং সংকল্প করছে।”

পুতিনের কথা উল্লেখ করে বাইডেন বলেন, “এই মুহূর্তে আমি নিশ্চিত যে, তিনি সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।”

এর আগে, বাইডেন এবং তার উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা বলেছেন যে, তারা এই ঘটনাটি জানেন না।

তবে বাইডেন বলেন, “রাশিয়া এখনো কূটনৈতিক পন্থা বেছে নিতে পারে এবং উত্তেজনা কমাতে ও আলোচনার টেবিলে ফিরে আসতে খুব বেশি দেরি হয়নি।”

শুক্রবার আবারো উত্তেজনা বাড়তে দেখা দেয়। দুটি বিচ্ছিন্নতাবাদী এলাকার নেতারা বাসিন্দাদের সরিয়ে নেওয়ার ঘোষণা দেন। তারা বলেছেন, ইউক্রেন গোলাবারুদ মজুদ বাড়িয়ে দিয়েছে এবং হামলার পরিকল্পনা করছে।

যদিও ইউক্রেন বার বার বলেছে যে, তারা কোনো হামলার পরিকল্পনা করছে না এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিমিত্রো কুলেবা এটিকে ‘রাশিয়ার বিভ্রান্তিমূলক প্রতিবেদন’ বলে বর্ণনা করেছেন এবং অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন।

Loading