মাশরাফিহীন টাইগারদের প্রথম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ

প্রকাশিত: ৮:৪৯ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ১০, ২০২১

এক সময় মাশরাফিকে ছাড়া কোনো কিছুই চিন্তা করা যেত না। বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে তিনি ছিলেন অপ্রতিদ্বন্দ্বী অধিনায়ক। তাকে ছাড়াই এবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নামছে টাইগাররা।

২০১৭ সালে এই ফরম্যাট থেকে বিদায় নেয়া ম্যাশকে মধ্যপ্রাচ্যের টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিশ্চয় দারুণ মিস করবে বাংলাদেশ। আনুষ্ঠানিক অবসর না নিলেও মাশরাফি দলের বাইরে চলে যাওয়ার পর এই প্রথম কোনো আইসিসি ইভেন্ট খেলবে টিম টাইগার্স। কিন্তু তিনি না থাকলেও বাংলার ক্রিকেটে ফিরে ফিরে আসে মাশরাফির নাম।

একজন মাশরাফিকে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের জার্সিতে আর দেখা যাবে না। ঘটনা বছর চারেক আগের। কিন্তু শেষের শুরু তো হয়েছিল আরও আগেই, সেই ২০০৯ সালে, যেদিন নিজের শেষ টেস্ট ম্যাচটাও খেলে ফেলেছিলেন মাশরাফি।

মাশরাফি এখন পর্যন্ত হওয়া সবকয়টা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেই খেলেছেন। ২০০৭ থেকে ২০১৬, মোট আধা ডজন বিশ ওভার ফরম্যাটের বিশ্বকাপ। তার মধ্যে অবশ্য সবশেষ বিশ্বকাপেই সর্বোচ্চ সাত ম্যাচ খেলেছিলেন ম্যাশ।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে মোট ২৩ ম্যাচ খেলেছেন টাইগারদের সাবেক ক্যাপ্টেন। তার কাজটা মূলত ছিল বোলিং। নিয়েছেন ১৩ উইকেট। সেই সাথে টেইলএন্ডার হিসেবে নেমেও প্রায় ১৪ গড়ে রান তুলেছেন। কিন্তু এসবই এখন শুধুই অতীত। মাশরাফি আর কখনো বাংলাদেশের হয়ে খেলবেন না টি-টুয়েন্টি বিশ্বকাপ। তার পরেও ক্রিকেটের মানুষ মাশরাফি, ক্রিকেটের মাঠেই তাই ফিরে ফিরে আসে তার নামটা।

তবে মাশরাফি, এই নামটা অন্যরকম। নিজে না খেললেও বিশ্বকাপ দল মধ্যপ্রাচ্যে যখন রওয়ানা দিবে তার আগেই মিরপুরের মাঠে তাসকিনদের দিয়েছেন গুরুত্বপূর্ণ পরামর্শ। যুগিয়েছেন আত্নবিশ্বাস। এসবের পরেও টাইগার ভক্তদের মাশরাফির কথাই মনে পড়বে।