আবারও বাড়লো মৃত্যু ও সংক্রমণ

প্রকাশিত: ১১:০৭ পূর্বাহ্ণ , জুলাই ১৪, ২০২১

মহামারী করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ের ফিরতি তাণ্ডবে আবারও বাড়লো মৃত্যু ও সংক্রমণ। টিকা কার্যক্রম চললেও থামছে না মৃত্যুর মিছিল। যে মিছিলে গত ২৪ ঘণ্টায় শামিল হয়েছে আরও সাড়ে ৮ সহস্রাধিক প্রাণ। যার মধ্যে সর্বোচ্চ ১৬১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে ব্রাজিলে। এ সময়ে বিশ্বে শনাক্ত হয়েছে আরও ৫ লাখ ৮ হাজার ৭৯৩ জন।

করোনা আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যানবিষয়ক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্যানুযায়ী, এ নিয়ে বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনা রোগীর মোট সংখ্যা ১৮ কোটি ৮৫ লাখ ৭৯ হাজার ৬১৫। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৪০ লাখ ৬৫ হাজার ৩২৬ জনের। এ পর্যন্ত ভাইরাসটির সংক্রমণ থেকে ১৭ কোটি ২৪ লাখ ৬ হাজার ২৭৭ জন সুস্থ হলেও সক্রিয় রোগীর সংখ্যা এখনও ১ কোটি ২১ লাখ ৮ হাজার ১২ জন।

বিশ্বে করোনায় ক্ষতিগ্রস্ত দেশের তালিকায় সবার ওপরে থাকা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত হয়েছে ২৮ হাজার ৯২৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩০৭ জনের। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৩ কোটি ৪৮ লাখ ৭ হাজার ৮১৩। যার মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ২৩ হাজার ৪৩৫ জনের। চিকিৎসাধীন ৪৮ লাখ ৭৯ হাজার ৯২৭ জন।

এর পরের স্থানেই থাকা এশিয়ার জনবহুল দেশ ভারতে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দৈনিক সংক্রমণের সংখ্যা বিশ্বে সর্বোচ্চ থাকলেও তা এখন কমেছে। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণহানি ঘটেছে ৬২৩ জনের। এ সময়ে নতুন করে শনাক্ত হয়েছে আরও ৪০ হাজার ২১৫ জন। যাতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩ কোটি ৯ লাখ ৪৪ হাজার ৯৪৯ জনে। আর মৃত্যু হয়েছে ৪ লাখ ১১ হাজার ৪৩৯ জনের। ৩ কোটি ৯৭ হাজার ৯৬ জন সুস্থ হলেও এখনও চিকিৎসাধীন ৪ লাখ ৩৬ হাজার ৪১৪ জন।

তালিকার তৃতীয়স্থানে থাকা ল্যাটিন আমেরিকার ফুটবলপ্রিয় দেশ ব্রাজিলে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ১ হাজার ৬১৩ জনের এবং শনাক্ত হয়েছে ৪৫ হাজার ৯৪ জন। যা নিয়ে দেশটিতে এখন মোট মৃতের সংখ্যা ৫ লাখ ৩৫ হাজার ৯২৪ আর মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৯১ লাখ ৫২ হাজার ৬৫। চিকিৎসাধীন ৮ লাখ ৪৫ হাজার ৫২৪ জন। দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টাতেই সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৩ হাজার ৯৬৩ জন।

তালিকায় এরপরেই থাকা রাশিয়া, ফ্রান্স, তুরস্ক, যুক্তরাজ্য, আর্জেন্টিনা ও ইতালিতে সংক্রমণ সংখ্যা ৪০ থেকে ৬০ লাখের মধ্যে থাকলেও তুরস্ক বাদে অপর দেশগুলোতে মৃত্যু লাখ ছাড়িয়েছে। সংক্রমণে ১৫ নম্বরে থাকা মেক্সিকোতে মৃত্যু ছাড়িয়েছে ২ লাখ ৩৫ হাজার। আর ১০ লাখ ৪৭ হাজার সংক্রমণ নিয়ে ২৯ নম্বরে উঠে আসা বাংলাদেশে মৃত্যু ছাড়িয়েছে ১৬ হাজার ৮শ।

Loading