পাঁচবিবিতে চাকুরীতে যোগদানের আগেই লাশ হলো সাগর

প্রকাশিত: ৬:৪০ অপরাহ্ণ , এপ্রিল ২, ২০২১
জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে চাকুরী নামক সোনার হরিণ হাতে পাওয়ার আগেই লাশ হতে হলো সাগর ইসলাম (২৫) নামের এক যুবক।

জয়পুরহাটের পাঁচবিবিতে চাকুরী নামক সোনার হরিণ হাতে পাওয়ার আগেই লাশ হতে হলো সাগর ইসলাম (২৫) নামের এক যুবক।
নিহত সাগর গত ২৩ শে মার্চ মঙ্গলবার প্রতিরক্ষা মন্ত্রনায়ের অফিস সহায়ক পদে যোগদানের উদ্দেশ্য ঢাকায় রওনা হন। ২৫ শে মার্চ বৃহস্পতিবার তার কর্মস্থলে যোগদানের কথা থাকলেও ঐদিন নারায়নগঞ্জের সোনাগাঁও উপজেলার বৈদ্যরবাজার-বারদী সড়কের খংশারদীর ব্রীজের নিচ থেকে তার লাশ উদ্ধার করে সোনাগাঁও থানা পুলিশ। নিহত ঐ যুবক উপজেলার ধরঞ্জী ইউনিয়নের নন্দইল গ্রামের আব্দুর রশিদের ছেলে বলে জানা গেছে।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, পাঁচবিবি উপজেলার উচনা গ্রামের মৃত-মজিবর রহমানের ছেলে আব্দুর রউফের মাধ্যমে একই উপজেলার কুসুম্বা ইফনিয়নের হরেন্দা গ্রামের আফাজ উদ্দিনের ছেলে গোলাম রসুল মাস্টার, একই গ্রামের মোহাম্মদ মাস্টারের ছেলে আব্দুল আলিম ও জয়পুরহাট জননী লাইব্রেরীর রবির সঙ্গে সাগরের বাবা রশিদের পরিচয় হয়। এই পরিচয়ের সূত্র ধরে আব্দুর রশিদের ছেলে সাগরকে প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে চাকুরী দিবে মর্মে ৯ লক্ষ টাকা চুক্তি হয়। সেই মোতাবেক ছেলের চাকুরীর আশায় আব্দুর রশিদ তাদের ৭লক্ষ টাকা দেন এবং বাঁকী টাকা নিয়োগ পত্র পাওয়ার পর দিবে বলে জানান।
গোলাম রসুল, আব্দুল আলীম ও রবি মোবাইল ফোনে রশিদকে জানান, তার ছেলের নিয়োগপত্র হয়েছে। বাঁকী টাকা নিয়ে ঢাকায় আসতে বলেন। তাদের কথায় গত ২৩শে মার্চ রশিদ ছেলে নিয়ে ঢাকায় যান এবং ২৪/০৩/২০২১ইং ঢাকার কালফি নামকস্থানে রশিদের হাতে প্রতিরক্ষা গোয়েন্দা মহা-অধিদপ্তরসহ অঙ্গ বাহিনী সংস্থা সমূহের সাংগাঠনিক কাঠামো ভূক্ত বিজ্ঞপ্তি স্বারক নং-২৩.১৭০০০০.০১.০৪.০৩৮.১৯.১৬২২, এর অনুযায়ী সুপারিশক্রমে অফিস সহায়ক পদে গত ২৫/০৩/২০২১ই তারিখ যোগদানের জন্য একটি নিয়োগ পত্র প্রদান করেন। ছেলের নিয়োগপত্র হাতে পেয়ে বাঁকী টাকা নিয়োগপত্র প্রদানকারীদের হাতে তুলে দিয়ে বাড়ীতে আসেন।

এমতবস্থায় গত ২৫শে মার্চ নারায়নগঞ্জের সোনাগাঁও থানা পুলিশ বৈদ্যরবাজার-বারদী সড়কের খংশারদীর ব্রীজের নিচ থেকে অজ্ঞাতনামা লাশ হিসাবে সাগরকে উদ্ধার ও লাশের ময়নাতন্ত পূর্বক দাফন করে ওই দিনই পুলিশ বাদী হয়ে সোনাগাঁও থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং-২৭।

অপরদিকে লাশের সঙ্গে থাকা মোবাইল সিমের এনআইডির সূত্রে সিমটি উপজেলার শ্রীমন্তপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের নৈশ প্রহরী কামরুজ্জামন কাবুর। সোনারগাঁও থানা পুলিশ পাঁচবিবি থানায় পাঠানো এমন তথ্যের সূত্র ধরে নিহত সাগরের পরিচয় পান পাঁচবিবি থানা পুলিশ। এদিকে সাগর নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত হওয়ায় এলাকার শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এ বিষয়ে সোনাগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত পুলিশ কর্মকর্তা (ওসি) রবিউল ইসলাম জানান, ২৫ তারিখ সকাল সাড়ে ৭টায় স্থানীয় লোকদের খবরের ভিত্তিতে খংশারদীর ব্রীজের নিচ থেকে অজ্ঞাতনামা যুবকের লাশটি উদ্ধার করি।

পাঁচবিবি থানার অফিসার ইনচার্জ পলাশ চন্দ্র দেব বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়ে চাকুরীতে যোগদানের উদ্দেশ্যে গিয়েছিল বলে শুনেছি। পরে নারায়নগঞ্জে তার লাশটি অজ্ঞাতনামা হিসাবে উদ্ধার করে সোনারগাঁও থানা পুলিশ।