আল জাজিরার রিপোর্ট উদ্দেশ্য প্রনোদিত

প্রকাশিত: ৭:৫৩ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ৬, ২০২১

আল জাজিরার রিপোর্টে তথ্যগত ভুল রয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন। তিনি বলেন, দেশের মানুষ বুঝে গেছে এই রিপোর্ট উদ্দেশ্য প্রনোদিত। এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে কাজ চলছে বলেও জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। 

আল জাজিরা টেলিভিশনে বাংলাদেশকে নিয়ে মিথ্যে এবং বানোয়াট তথ্যচিত্র প্রচার করে। বাংলাদেশও এ বিষয়ে অবস্থান তুলে ধরেছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেন, আল জাজিরার রিপোর্ট মিথ্যায় ভরা। অসত্য সংবাদ প্রচার করে তারা নৈতিকতার বাইরেও কাজ করেছে বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। আল জাজিরার রিপোর্টে খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ প্রক্রিয়া শেষ হলে ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়ে ভাবা হবে বলে জানান মন্ত্রী।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন বলেন, আল জাজিরা অনেক সুনাম হারিয়ে ফেলেছে। এই ধরনের বানোয়াট এবং জোড়াতালি দিয়ে করায় তারা গ্রহণযোগ্যতা হারিয়েছে। সেটা আমরা দেখবো, যেখানে তথ্যগত ভুল সেটা আমরা তুলে ধরবো। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার ব্যাপারে কাজ করছি।

মিয়ানমারের নতুন সরকারের সঙ্গে এখনও যোগাযোগ হয়নি বলে উল্লেখ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তবে, সামরিক বাহিনী ক্ষমতা গ্রহণের কারণ উল্লেখ করে বাংলাদেশকে একটি চিঠি দিয়েছে বলে জানান তিনি।

এ কে আবদুল মোমেন বলেন, রাখাইন সরকার একটা চিঠি দিয়েছে আমাদের রাষ্ট্রদূতকে। সেইখানে তারা বলেছে কি কারণে তারা ক্ষমতাগ্রহণ করেছে। তারা বলেছে যে ১০.৪ মিলিয়ন ভুয়া ভোট হয়েছে, সেই ভুয়া ভোটের কারণে তারা এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে কুতুপালংয়ে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের কথা বলছেন বলেও জানান এ কে আবদুল মোমেন।

এদিকে, সাবেক মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেন গুপ্তের প্রয়ান দিবসের এক আলোচনা সভায় পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মানান বলেন আল জাজিরার উদ্দেশ্যমূলক অপপ্রচার বাংলাদেশের অগ্রগতিকে বাধাগ্রস্ত করতে পারবে না।