নতুন ইতিহাসে বাংলাদেশ

প্রকাশিত: ১:১৯ অপরাহ্ণ , ডিসেম্বর ১০, ২০২০

স্বপ্ন আর স্বপ্ন নয়, এখন তা বাস্তব। নতুন ইতিহাস রচনা করলো বাংলাদেশ। পদ্মা সেতুতে বসানো হলো শেষ স্প‌্যান। আর এই ৪১তম স্প্যান বসানোর মধ‌্যে দিয়ে দৃশ‌্যমান হলো ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের পুরো সেতু।

বৃহস্পতিবার (১০ ডিসেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে সেতুর সর্বশেষ স্প্যান ‘২-এফ’ বসানোর কাজ শেষ হয়।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান আব্দুল কাদের বলেন, ‘আজ সকাল ৯টা থেকে সেতুতে সর্বশেষ স্প্যান বসানোর কাজ শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কুয়াশা থাকায় কাজ শুরু হতে কিছুটা দেরি হয়। পরে দুপুর ১২টার দিকে ৪১তম স্প‌্যানটি বাসনোর কাজ শেষ হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘৪০তম স্প্যান বসানোর ৬ দিনের মাথায় সেতুর মুন্সীগঞ্জের মাওয়া অংশে মাঝ নদীতে ১২ ও ১৩ নম্বর পিয়ারে (পিলারের ওপরের প্ল‌্যাটফরম) ৪১তম স্প্যানটি বাসানো হয়। রাতেই স্প্যানটি ভাসমান ক্রেনে করে নির্ধারিত পিলারের কাছে নেওয়া হয়।’

এদিকে, স্প্যান বাসানো ছাড়াও অন্যান্য কাজও এগিয়ে চলছে। এর মধ্যে সেতুতে ১৮ শতাধিক রেলওয়ে ও ১২ শতাধিক রোডওয়ে স্ল্যাব বসানো হয়েছে। বাংলাদেশ সরকারের নিজস্ব অর্থায়নে ৩০ হাজার ১৯৩ কোটি টাকা ব‌্যয়ে এই সেতুর নির্মাণকাজ চলছে।

উল্লেখ‌্য, ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে পদ্মা সেতুর নির্মাণকাজ শুরু হয়। ২০১৭ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিয়ারে প্রথম স্প্যান বসানোর মধ্য দিয়ে দৃশ্যমান হয় পদ্মা সেতু।

৪২টি পিয়ারে ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের ৪১টি স্প্যান বসিয়ে ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতু নির্মাণ হচ্ছে। সব কয়টি পিয়ার এরই মধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে।