৭ দিনের রিমান্ডে গোল্ডেন মনির

প্রকাশিত: ৫:২৩ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ২২, ২০২০

অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের ২ মামলায় গোল্ডেন মনিরের ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রোববার (২২ নভেম্বর) ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম শুনানি শেষে এ রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইন, অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে গোল্ডেন মনিরের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা করা হয়। রোববার (২২ নভেম্বর) সকালে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) বাদী হয়ে এই তিনটি মামলা দায়ের করে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বাড্ডা থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন) ইয়াসিন আলী। এ ছাড়া অস্ত্র, মাদক ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে করা ৩ মামলায় গোল্ডেন মনিরের ৭ দিন করে মোট ২১ দিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ।

রাজধানীর মেরুল বাড্ডায় মনিরের বাসায় রাতভর অভিযান চালিয়ে শনিবার (২১ নভেম্বর) সকালে মনিরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অভিযানে এক কোটি নয় লাখ টাকা, ৫টি বিলাসবহুল গাড়ি, স্বর্ণালংকার, অস্ত্র ও মাদক জব্দ করা হয়। গোল্ডেন মনির একটি রাজনৈতিক দলের অর্থ জোগান দিত বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

এ ছাড়া অবৈধভাবে আমদানি করা দুটি বিলাসবহুল গাড়ি পাওয়া যায়। যার মূল্য তিন কোটি টাকার ওপরে। এ ছাড়া শোরুমে আরও তিনটি গাড়ি পাওয়া যায়।

নব্বই দশকে গাউছিয়া মার্কেটের কাপড়ের দোকানের বিক্রয়কর্মী মনির স্বর্ণ চোরকারবারি, হুন্ডি ও ভূমি ব্যবসায়ী হয়ে ওঠেন। রাজউকের কিছু অসাধু কর্মকর্তার যোগসাজশে বাড্ডা ও কেরানীগঞ্জে মনিরের দুই শতাধিক প্লটের হদিস পেয়েছে র‌্যাব।

র‌্যাব জানায়, গোল্ডেন মনিরের আরেকটি পরিচয় আছে, সেটা হচ্ছে ভূমিদস্যু। রাজউকের অসাধু কর্মকর্তার সঙ্গে যোগসাজশে বিপুল পরিমাণ অর্থসম্পদের মালিক হয়েছে। ঢাকার শহরের ডিআইটি প্রজেক্ট, এর পাশাপাশি বাড্ডা নিকুঞ্জ উত্তরা এবং কেরানীগঞ্জে ২০০ বেশি প্লট রয়েছে। ইতোমধ্যে ৩০টির কথা তিনি আমাদের কাছে স্বীকার করেছেন।