ই-সিগারেট নির্মূলে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করতে হবে

প্রকাশিত: ৮:৩৬ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ৪, ২০২০

ডেপুটি স্পিকার মো. ফজলে রাব্বী মিয়া ই-সিগারেটকে নেশাজাত পণ্য উল্লেখ করে বলেছেন, মাদক নির্মূলের ন্যায় এই সিগারেটের বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতি গ্রহণ করতে হবে।

তিনি আজ রাজধানীর অফিসার্স ক্লাবে ঢাকা ইনাটারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি আয়োজিত “তরুণদের নেশায় আসক্ত করতে নতুন হুমকি ই-সিগারেট : বন্ধের উপায়” শীর্ষক এক ভার্চুয়াল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, যুব সমাজকে ধ্বংসের এক অভিনব নেশাজাত পণ্য ই-সিগারেটের আমদানি, উৎপাদন ও বিপনন অতি দ্রুত বন্ধ না করলে কোমলমতি যুবসমাজ বিপথগামী হয়ে যাবে। ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করতে আইন প্রনয়নের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে ডেপুটি স্পিকার বলেন, পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত যদি ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করতে পারে, বাংলাদেশ কেন পারবো না।

তিনি বলেন, একটা আইন করা সময় সাপেক্ষ তাই প্রচলিত যে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন রয়েছে সেটিতে একটি সংশোধনী এনে এই বিষয়টির উপর একটি ধারা সংযোজন করা যেতে পারে।

সংসদ সদস্য শামীম হায়দার পাটোয়ারি এমপির সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শামসুল হক টুকু, ডা. হাবিবে মিল্লাত এমপি, শিরিন আক্তার এবং ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত।