আশুলিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় যুবলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৪

প্রকাশিত: ৯:৫৩ অপরাহ্ণ , সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

আশুলিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় যুবলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৪

আশুলিয়ায় মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে এক মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় যুবলীগ নেতা আবুল হোসেন আপনসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার তাদের সাত দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে পাঠানো হয়। দুপুরে সাভার মডেল থানায় এক সংবাদ সম্মেলনে ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

 

তবে তাদের কয়দিনের রিমান্ড মঞ্জুর হয়েছে তা নিশ্চিত হওয়া সম্ভব হয়নি।

 

আটককৃতরা হচ্ছে, আশুলিয়ার কন্ডা এলাকার সিরাজুল ইসলামের ছেলে আবুল হোসেন একই এলাকার কামরুল ও আজিম। এদের মধ্যে সিরাজুল ইসলাম থানা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য।

 

স্থানীয় সূত্র জানায়, যুবলীগ নেতা ও তার দুই ভাই জাকির মন্ডলের এবং বাবুলের হাতে এলাকার লোকজন জিম্মি হয়ে পড়েছে। তাদের নামে আশুলিয়া ও আশপাশের বিভিন্ন থানায় পুলিশ সদস্য কুপিয়ে হত্যার চেষ্টা, গুলি করে হত্যা, চাঁদাবাজি, নির্যাতনসহ প্রায় ১৯টি মামলা রয়েছে। এলাকায় বিভিন্ন যানবাহন থেকে চাঁদাবাজিসহ সব ধরনের অপকর্ম জাকির বাহিনীর লোকজন পরিচালনা করে থাকে। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাধ করতেও সাহস পায় না। স্থানীয় হিন্দু পরিবারের নারী সদস্যদের ওপর নির্যাতনেরও অভিযোগ রয়েছে এই বাহিনীর অপর সদস্য আকিজুর মন্ডল ও নাজমুলের বিরুদ্ধে।

আশুলিয়া থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জিয়াউল ইসলাম বলেন, মাদ্রাসা ছাত্রকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় কন্ডা এলাকা থেকে যুবলীগ নেতাকে আটক করা হয়েছে। তার নামে একাধিক মামলা রয়েছে বলেও জানান তিনি।

এ ব্যাপারে ঢাকা জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ঘটনাটি শোনার পর দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

এর আগে গত সোমবার রাতে লালমনিরহাট এলাকা থেকে সবুজ মিয়া ও জাহিদুল নামের দুই কিশোর বাড়ি থেকে রাগ করে বোনের বাড়ির উদ্দেশ্যে আশুলিয়ার মোজার মেইল বাসস্ট্যান্ডে আসে। তবে অনেক রাত হওয়ায় বাড়ি খুঁজে না পেয়ে তারা বাসস্ট্যান্ডেই অপেক্ষা করছিল। এই সময় কয়েকজন দুর্বৃত্ত রাতে তাদের থাকার জায়গা ব্যবস্থা করবে বলে কৌশলে নিয়ে গিয়ে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবি করে। মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে মাদ্রাসা ছাত্র সবুজ মিয়াকে পিটিয়ে হত্যা করে মঙ্গলবার ভোরে ডোবায় ফেলে দেয় তারা