বন্যা কবলিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে না পেরে কাঁদলেন তৃতীয় লিঙ্গের ভাইস চেয়ারম্যান

প্রকাশিত: ৩:২৫ অপরাহ্ণ , জুলাই ৭, ২০২৪

রোকনুজ্জামান সবুজ জামালপুর: উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও কয়েক দিনের ভারী বর্ষণে জামালপুরে যমুনা নদীর পানি কমতে শুরু করেছে। পানি কমতে শুরু করলেও দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার হাজার হাজার মানুষ এখনও পানিবন্দী। আর এ সকল পানিবন্দী অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়াতে না পেরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেইসবুকে কাঁদলেন তৃতীয় লিঙ্গ থেকে নির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান মুন্নি আক্তার।

শনিবার (৬ জুলাই) দিনগত রাতে মু্ন্নি আক্তার তার ফেইসবুক আইডি থেকে এই ধরনের একটি ভিডিও আপলোড করেন। 

ভিডিওতে মু্ন্নি আক্তারকে বলতে শোনা যায়, আসসালামু আলাইকুম আমার প্রাণপ্রিয় দেওয়ানগঞ্জ উপজেলাবাসী। আপনারাতো মনে করতেছেন আপনাদের সামনে আমি কেনো যাচ্ছি না। আপনাদের সামনে দাঁড়ানোর মতো আমার ক্ষমতা নাই। সবার ঘরে ঘরে বন্যার পানি অথচ আমি কিছুই করতে পারতেছি না। আমি কিভাবে যাবো আপনাদের সামনে, আপনাদের সামনে যাওয়ার মতো মুখ আমার নাই। আমি কারো কাছ থেকে কোন সাড়া পাচ্ছি না। আমি উপজেলা পরিষদ থেকে কিছুই পাইনি আমি আপনাদের কিভাবে দিমু!

কেঁদে কেঁদে তিনি আরো বলেন, ‘বিভিন্ন জায়গা থেকে গরীব অসহায় মানুষ তার কাছে সহযোগিতা চাচ্ছেন, অথচ তিনি তাদের জন্য কিছুই করতে পারছেন না। অনেকে না খেয়ে রয়েছে, অনেকে কান্নাকাটি করছে ত্রাণের জন্য। কিন্তু তাদের জন্য তিনি কিছুই করতে পারছেন না’।

গত ২১ মে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে পাঁচ প্রার্থীকে হারিয়ে জয়ী হন তৃতীয় লিঙ্গের মুন্নি আক্তার। সেলাই মেশিন প্রতীকে ২৩ হাজার ৭৬৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন তিনি। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোছা. মাজেদা কলস প্রতীকে পেয়েছেন ২১ হাজার ১৮৪ ভোট।

উল্লেখ্য, গত কয়েকদিনের ভারী বর্ষণে যমুনার পানি বিপৎসীমার ৯০ সেন্টিমিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এতে ইসলামপুর উপজেলার সদর ইউনিয়ন, চিনাডুলী, পাথর্শী, সাপধরী, বেলগাছা, কুলকান্দি, নোয়ারপাড়া, পলবান্দা; দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়ন, চিকাজানী, চুকাইবাড়ী, বাহাদুরাবাদ, চর আমখাওয়া, ডাংধরা, পাররামরামপুর, হাতিভাঙ্গা, পৌরসভার, মেলান্দহ উপজেলার ঘোষেরপাড়া, মাহমুদপুর,মাদারগঞ্জ উপজেলার চরপাকেরদহ ও জোড়খালী ইউনিয়ন, বকশীগঞ্জ ও সরিষাবাড়ী উপজেলার নিম্ন অঞ্চলের ইউনিয়নসহ ৩৪ ইউনিয়ন বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে‌। এতে প্রায় এক লাখ মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন।

Loading