শহীদ আহসান উল্লা মাস্টার ছিলেন একজন ত্যাগী নেতা : মির্জা আজম এমপি

মো: ইকবাল হোসেন মো: ইকবাল হোসেন

ভ্রাম্যমান প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৪:০৯ অপরাহ্ণ , জুন ১, ২০২৪

জাতীয় শ্রমিক লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক শহীদ আহসান উল্লা মাস্টার ছিলেন একজন ত্যাগী নেতা। বিএনপি-জামাত ক্ষমতায় থাকা অবস্থায় আওয়ামী লীগের অনেক নেতাকর্মীকে প্রকাশ্যে দিবালোকে গুলি করে হত্যা করেছে। ২০০৪ সালের ৭ মে গাজীপুরের জনপ্রিয় নেতা শহীদ আহসান উল্লাহ মাষ্টারকে দিনদুপুরে বিএনপির সন্ত্রাসীরা গুলি করে হত্যা করে। আমি হত্যাকারীদের বিচারের রায় যেন দ্রুত কার্যকর করা হয় সেই আহ্বান জানাচ্ছি। শুক্রবার সন্ধ্যায় গাজীপুর মহানগরীর গাছা ৩৮নং ওয়ার্ড এলাকাবাসীর উদ্যোগে ভাওয়াল বীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের ২০ তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা আজম এমপি এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকার আগামী ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণতি করবে। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা ও স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কাজ করে যাচ্ছে।
গাছা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন মহির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম এমপি।
বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি সভাপতি মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এম.পি, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গাজীপুর উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আজমত উল্লাহ খান ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আতাউল্লাহ মন্ডল।
অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, ৩৮নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হাজী মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আফজাল হোসেন খান রিপন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী ইলিয়াস আহমেদ, গাছা থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী আদম আলী, গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মোঃ শহীদুল্লাহ, গাজীপুর মহানগর মৎস্যজীবী লীগের সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান, মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সদস্য হাজী আব্দুর রশিদ মিয়া, অধ্যক্ষ বাবু প্রদীপ দেবনাথ প্রমুখ।

Loading