সীমান্ত হত্যায় চোরাকারবারিদের দায়ী করলেন বিএসএফ প্রধান

প্রকাশিত: ৪:৪১ অপরাহ্ণ , মার্চ ৯, ২০২৪

সীমান্ত হত্যার জন্য দুই দেশের চোরাকারবারিদের দায়ী করেছেন ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ মহাপরিচালক। মাদক ও মাদক পাচারে জিরো টলারেন্স নীতিতে একমত দুই দেশ।

সীমান্ত সম্মেলন শেষে সংবাদ সম্মেলনে মাদক, পণ্য ও মানব পাচার প্রতিরোধ এবং সীমান্ত উত্তেজনা নিরসনে একসঙ্গে কাজ করার কথা জানিয়েছেন বিজিবি ও বিএসএফ।

বিজিবি-বিএসএফ মহাপরিচালক পর্যায়ের ৫৪তম সীমান্ত সম্মেলনে মাদক ও মানব পাচার রোধের বিষয়টিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে আলোচনা করে দুই পক্ষ। এ বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতিতেই হাটছে দুই দেশ। অপরাধ নির্মূলে প্রযুক্তি নির্ভর নিরাপত্তা জোরদার করার বিষয়েও একমত হয় বিজিবি ও বিএসএফ।

সম্মেলন শেষে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেন বিজিবি ও বিএসএফের মহাপরিচালক। তারা বলেন, সীমান্ত হত্যার মূল কারণ চোরাকারী চক্র। তাদের বিষযে কঠোর অবস্থানে কথা জানায় দুই বাহিনী।

সীমান্ত হত্যা কোনো টার্গেট কিলিং নয়, তবে ভবিষ্যতে কোনো দেশ বা সংস্থার কোনো সদস্য যেনো সীমান্তে মারা না যান সে বিষয়ে আরও সচেষ্ট ভূমিকা থাকবে বলেও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

সীমান্তে চোরাকারবারিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালাতে গিয়ে শুধু বাংলাদেশী নয়, ভারতীয় নাগরিকরাও হত্যার স্বীকার হচ্ছে। আত্মরক্ষার জন্যই বিএসএফ গুলি চালায় বলে জানান বিএসএফ মহাপরিচালক।

অমিমাংসিত আরও বেশ কিছু ইস্যুতে সীমান্ত সম্মেলনে আলোচনা হয়েছে বলেও জানান বিজিবি মহাপরিচালক।

Loading