জনগণের পিঠ এখন দেয়ালে ঠেকে গেছে

প্রকাশিত: ৬:২৯ অপরাহ্ণ , জুন ২৪, ২০২০

করোনাকালে অসহায় মানুষদের মাঝে ত্রাণ বিতরণের সময় দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে কারাগারে বন্দি করার অভিযোগ তুলে সরকারের কড়া সমালোচনা করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

ফখরুল বলেন, কারাগারগুলোতে বন্দি ধারণের আর ঠাঁই নেই। বর্তমানে করোনাভাইরাসের দুর্যোগময় সময়ে বিএনপি নেতাকর্মীরা গরিব ও দুস্থ মানুষদের সাহায্যার্থে এগিয়ে এসেছে। তখন তাদেরকে গ্রেফতার করে কারান্তরীণ করা সরকারের অশুভ ইচ্ছারই বহিঃপ্রকাশ। এ সব অপকর্মের মূল লক্ষ্য একটাই তা হল ক্ষমতাকে চিরদিনের জন্য পাকাপোক্ত করা। কিন্তু সরকার এ সব কুকর্ম করে ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করে রাখতে পারবে না। কারণ জনগণের পিঠ এখন দেয়ালে ঠেকে গেছে। ফ্যাসিবাদী শাসনের বিরুদ্ধে জনগণ এখন আরও বেশি ঐক্যবদ্ধ।

বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এ সব কথা বলেন।মঙ্গলবার জাতীয়তাবাদী যুবদলের কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর উপজেলা যুবদলের সভাপতি মো. জাহিদুল ইসলাম বিপ্লবকে সাদা পোশাকে পুলিশ বাহিনী আটক করে মিথ্যা মামলায় কারাগারে পাঠিয়েছে জানিয়ে এ ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান বিএনপি মহাসচিব।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার বলেই বিপ্লবকে গ্রেফতার করে কারান্তরীণ করা হয়েছে। অবিলম্বে তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলা প্রত্যাহার ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানান মির্জা ফখরুল।

তিনি আরও বলেন, প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে বর্তমান সরকার বিএনপিসহ দেশের বিরোধী দলগুলোকে নিশ্চিহ্ন করে দেশকে বিরাজনীতিকরণের ঘৃণ্য উদ্দেশ্য সাধন করতে চাইছে। তাই তারা (সরকার) এখন এতটাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছে যে, গুম-খুন ও অপহরণের পাশাপাশি বিরোধী নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে মিথ্যা মামলা দিয়ে দেশের কারাগারগুলো ভরে ফেলছে।