সিটি হলে আইসোলেশন সেন্টার চালু হলে মহানগরীতে করোনা মোকাবিলায় আরও এগিয়ে যাবে

প্রকাশিত: ৮:০২ অপরাহ্ণ , জুন ১৮, ২০২০

-মেয়র নাছির

চট্টগ্রাম, ১৮ জুন, ২০২০ খ্রি.

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের অর্থায়ন ও সামগ্রীক ব্যবস্থাপনায় কোভিড-১৯ সনাক্তদের জন্য ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সিটি হল কোভিড আইসোলেশন হাসপাতালে আগামী ২১ জুন রোববার থেকে রোগী ভর্তি কার্যক্রম শুরু হবে।

চিকিৎসক ও নার্সসহ প্রশিক্ষিত জনবল এবং প্রয়োজনীয় চিকিৎসা সরঞ্জাম নিয়ে হাসপাতলটির কার্যক্রম ও করোনা রোগীর চিকিৎসা শুরুর সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে বলে জানান চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন।

মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন আজ বৃহস্পতিবার সকালে আগ্রাবাদস্থ সিটি হল কোভিড আইসোলেশন সেন্টারে স্বাস্থ্যসেবায় নিয়োজিত ডাক্তার, নার্স ও অন্যান্যদের সাথে পরামর্শমূলক সভায় এসব কথা বলেন।

মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের প্রশিক্ষিত করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় নিয়োজিত যোদ্ধাদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় মানসম্মত নিরাপত্তাসহ বর্ধিত বেতন ও ঝুঁকিভাতা প্রদান এবং সরকারি প্রণোদনা প্রাপ্তির সকল ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

এ সময় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) স্বাস্থ্য ও শিক্ষা স্ট্যান্ডিং কমিটির সভাপতি এবং কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, (চসিক) প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ আলী, মেমন মাতৃসদন হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. প্রীতি বড়–য়া, আইসোলেশন সেন্টারের পরিচালক ডা. সুশান্ত বড়ুয়া উপস্থিত ছিলেন।

সিটি মেয়র আইসোলেশন সেন্টারটি শুরু হওয়ার আগে এখানে যাদের নিয়োজিত করা হবে তাদের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় ১০ জন চিকিৎসক ও একজন স্টোর কিপারের অনুপস্থিতিতে দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, করোনা আক্রান্তদের সেবা প্রদানে তাদের অনীহা, শপথ ভঙ্গ ও পেশার প্রতি অবমাননা এবং রাষ্ট্রের প্রতি আনুগত্যহীনতার সামিল। দেশপ্রেম বর্জিত এ অনৈতিক আচরণের জন্য তাদের তাৎক্ষণিকভাবে চাকুরি থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। তাদের বাদ দিয়ে নব উদ্যোগ ও সামর্থ্য নিয়ে চসিক সিটি হল কোভিড আইসোলেশন সেন্টারটি চালু হওয়ার পর চট্টগ্রাম মহানগরীতে করোনা প্রাদুর্ভাব মোকাবেলায় কার্যকর ও ইতিবাচক সুফল বয়ে আনবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

মেয়র আশা প্রকাশ করেন যে, করোনা সনাক্তরা যাতে এ আইসোলেশন সেন্টার থেকে উপযুক্ত ও যথাযথ সেবা পান, সে ব্যাপারে দায়িত্বরত চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে মানবিক ও সামাজিক দায়িত্ব পালনে সচেষ্ট হয়ে সারাদেশে দৃষ্টান্ত স্থাপন করবেন। যারা প্রশিক্ষণ নিয়ে এখানে সেবা দিতে উদ্যোগী হয়েছেন তাদের সাধুবাদ জানান মেয়র। পি আই ডি চট্টগ্রাম