নোয়াখালীতে আ’লীগের দু-পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত-১, গুলিবিদ্ধ-১১, ওসিসহ আহত ২০

প্রকাশিত: ৪:৩৮ পূর্বাহ্ণ , মার্চ ১০, ২০২১

কোম্পানিগন্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খানের ওপর হামলার প্রতিবাদে ৯ মার্চ মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয়  বসুরহাট বাজারে প্রতিবাদ সভার আয়োজন করা হয়।এতে পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জার সমর্থকরা উক্ত প্রতিবাদ সভা করতে বাধা দেওয়া কে কেন্দ্র করে উভয়পক্ষের  মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।এ সময় দু-পক্ষের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১,গুলিবিদ্ধ ১১ জন,৫ পুলিশ সদস্য সহ অন্তত ২০ জন আহত হয়েছে।আহতদের বিভিন্ন হাসপাতাল ক্লিনিকে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এ সময় আ’লীগের দু-পক্ষের সংঘর্ষে সত্যতা জানতে চাইলে,কোম্পানীগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক(তদন্ত) মো.রবিউল হক  জানান,পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে গিয়ে ঘটনাস্থলে ওসি মীর জাহিদুল হক রনিসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন এবং ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।অপরদিকে উপজেলা ছাএলীগের সাধারণ সম্পাদক হ্রদয়কে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যায় এবং গুলিবিদ্ধ আরও দুজনের অবস্থা আশংখ্যা জনক বলে তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা প্রেরন করা হয়েছে।বাকী আহত ৮ জনকে নোয়াখালী সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এ বিষয়ে বুধবার ১০ ই মার্চ সকাল ৬ টা থেকে রাত ১২ পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি করেছেন,কোম্পানিগন্জের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জিয়াউল হক।