নোয়াখালীতে মেয়ের অপমান সইতে না পেরে ৬ সন্তানের জননী আত্যহত্যা

প্রকাশিত: ৬:০২ অপরাহ্ণ , ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২১
নোয়াখালী পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ড শাহাপুরে ৬ সন্তানের জননী কলেজে পড়ুয়া মেয়ের অপমান সইতে না পেরে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্যহত্যাকরেছে।এ ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল মঙ্গলবার রাত ৯ টা ১৫ মিনিটের দিকে।জানা গেছে,পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক তাজু কমিশনের বাড়ির আব্দুর রহিম ড্রাইভারের স্রী নুরজাহান(৫০)স্থানীয় শাহাপুর এলাকার নুরুল আমিন মুড়ির ছেলে ফখরুল ইসলাম রুমন,কয়েক দিন ধরে রহিম ড্রাইভারের কলেজে পড়ুয়া মেয়ে চাঁদনীকে উক্তক্ত করে আসছিল।পরে মেয়ের মা নুরজাহান বেগম বিষয়টি ছেলের বাবা মাকে অবগত করলে।পরে রুমন ক্ষিপ্ত হয়ে গত দুই দিন আগে মেয়েদের বাড়িতে এসে ধমক দিয়ে বলে চাদনীকে উঠিয়ে নিয়ে ধর্ষণ করার।পরে মেয়ের ভাই বাড়িতে এসে জখন জানতে পারে তাৎক্ষনিক রুমনকে
জিজ্ঞেসা করতে গেলে চাদনীর ভাইকে সে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে রুমন বলে থানা এবং কোটে তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ থাকা পরে ও কেউ আমার কিছু করতে পারেনি এ বলে তাদের মারধর করার পরে তারা রুমনের হাত থেকে পালিয়ে এসে তার মাকে বিষয়টি জানান।পরে মান সন্মানের ভয়ে চাদনীর মা নিহত নুরজাহান বেগম তার পিতার বাড়ি বিনোদপুরে চলে যান।আবদুর রহিম ড্রাইভার বলেন,মেয়ের অপমান সইতে না পেরে আমার স্রী বিনোদপুর আমার শশুর বাড়িতে চলে গেলে। এক পর্যায়ে আমি তাকে বুজিয়ে আমার নিজ বাড়িতে আনলে পরে আমি রাতে ৮ টার সময় খাওয়া দাওয়ার পরে একটু বিশ্রাম করতে গেলে প্রায় ১ দেড় ঘন্টা আমার স্রীকে দেখতে না পেয়ে পরে রাত ৯ টা ১৫ মিনিটের সময় আমাদের বারিন্দার পাশে একটি গাছের সাথে ওলনা দিয়ে পেচিয়ে গলাজ ফাঁস দিয়েছে।
এ সময় আমার ছেলেমেয়েরা সহ গলায় থেকে ওলনা পেচ খুলে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত ডাক্তার মৃত বলে জানান।এ রিপোর্টটি লেখা পর্যন্ত সুধারাম মডেল থানায় মামলা প্রকৃয়াধিন রয়েছে বলে জানা গেছে।