ফাইজুর রহমান সরকার এর অর্থ্যায়নে উপহার সামগ্রী ও মসজিদে নগদ অর্থ বিতরন

প্রকাশিত: ১:১৮ পূর্বাহ্ণ , মে ২৩, ২০২০

রায়পুরায় সাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাইজুর রহমান সরকার বাছেদ এর অর্থ্যায়নে বিগত দিনের ন্যায় করোনায় ভাইরাসের কারনে প্রথম দফায় ৫শত ও ২য় দফায় ৫শত মোট ১ হাজার কর্মহীন ঘরবন্দী পরিবারের মধ্যে ঈদ উপহার সামগ্রীসহ ৪৫টি মসজিদে নগদ অর্থ বিতরন করা হয়েছে। গতকাল নরসিংদীর রায়পুরার বাঁশগাড়ী স্বাধীন বাজারে প্রথম দফায় ৫শত ও ২য় দফায় ৫শত মোট ১ হাজার কর্মহীন ঘরবন্দী মানুষের মধ্যে ঈদ উপহার সামগ্রীসহ ৪৫টি মসজিদে নগদ অর্থ বিতরন কার্যক্রম অব্যহত রেখে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।
জানাগেছে, সাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাইজুর রহমান সরকার এর অর্থ্যায়নে উক্ত সংগঠনের পক্ষ থেকে দেশের বিভিন্ন জেলাসহ নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সরকারী দপ্তরসহ এলাকার অবহেলিত কয়েক শতাধিক মানুষের মধ্যে প্রথম দফায় ৫শত পরিবারের মধ্যে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ চাল,ডাল,লবন,আলু,তেল,সাবান নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ও ২য় দফায় ৫শত পরিবারের মধ্যে উন্নত মানের চাউল,চিনি,সেমাই,দুধ ঈদ উপহার সামগ্রী ও এলাকার ৪৫ টি মসজিদের নগদ অর্থপ্রদান করে এলাকার সাধারন মানুষের পাশে দাড়িয়েছেন।
নরসিংদী জেলা রায়পুরা উপজেলার চরাঞ্চলের বাশঁগাড়ী গ্রামের আওয়ামীলীগ নেতা বঙ্গবন্ধু রাজনীতি সহচর অন্যায়ের প্রতিবাদী দেশ কাপানো বর্ষিয়ান রাজনীতিবিদ মুক্তিযোদ্ধের অন্যতম সংগঠক ছাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া। তিনি এ দেশের মানুষ বঙ্গবন্ধুর ডাকে পাকবাহিনীর সাথে সংগ্রাম করতে সাড়া দিলে ঐ মুর্হতে সংগ্রাম চলাকালিন এ দেশের হাজার হাজার তরুন,যুবক বিভিন্ন শ্রেনীর মানুষকে মুক্তিযুদ্ধের প্রশিক্ষনের জন্য ভারতে প্রেরন তাদের খাবারসহ বিভিন্ন কাজে উৎসাহীত করার কাজে বলিষ্ট সাহসি ভমিকার পালন করে বঙ্গবন্ধুর সাহসী বীর সৈনিক খ্যাত অর্জন করে ছিলেন। বর্তমানে ছন্দু মিয়া সরকার উত্তরসুরীগন সুশিক্ষিত ছেলে মেয়েরা তার নামে ছন্দু মিয়া সরকার ফাউন্ডেশনের নামে একটি সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। দেশের বিভিন্ন জেলাসহ নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলায় এ সংগঠন দেশের মানুষের জন্য সমাজ সেবা মুলক কাজ করে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করে মানুষের কাছে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। এ সংগঠনের কাজ হলো সমাজের মানুষের জন্য ভাল কিছু উপহার দেওয়া। এ সংগঠন সমাজের মানুষের জন্য যা বলে তার চেয়ে বাস্তবে বেশী কিছু করে আংগুল দিয়ে দেখিয়ে দেওয়া। মানুষ মানুষের জন্য এই স্লোগান সমাজে বাস্তবে প্রতিষ্ঠা করতে এ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাইজুর রহমান সরকার নিজের ব্যবসা- বানিজ্য ক্ষতি হলেও নিজের কামানো অর্থ সময় দিয়ে মসজিদ,মাদ্রাসা,স্কুল,কলেজ,মন্দির,অবহেলিত মানুষের পাশে দাড়িয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে উপকার করার প্রচেষ্ঠা চালিয়ে যাচ্ছেন। উক্ত সংগঠনের বিশাল স্বেচ্ছাসেবক কর্মী বাহিনী রয়েছে প্রতিটি এলাকায় সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবক কর্মীদের মাধ্যমে কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে। সাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাইজুর রহমান সরকারসহ বাকিরা হলেন- সাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া ফাউন্ডেশনের পরিচালক এলজিইডির অতিরিক্ত সচিব মোকলেছুর রহমান সরকার, সাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া ফাউন্ডেশনের পরিচালক গনপুর্ত মন্ত্রনালয়ের অতিরিক্ত সচিব তানজিয়া ছালমা, সাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া ফাউন্ডেশনের পরিচালক সালেহা ইসলাম, সাইদুর রহমান সরকার ছন্দু মিয়া ফাউন্ডেশনের পরিচালক আলহাজ¦ নজরুল ইসলাম।
করোনা ভাইরাস আতংকে থমকে গেছে পুরো বিশ্ব। বাংলাদেশ সরকারের ঘোষিত লকডাউন চলছে। প্রশাসন, পুলিশ ও সেনাবাহিনীর নিয়মিত টহলে জনসাধারণের ঘরের বাহিরে বের হওয়া বন্ধ তাই ঘরবন্ধি খেটে খাওয়া মানুষ গুলো খাদ্যের অভাব দুর করতে এ প্রকল্প হাতে নিয়েছি। এ অবস্থায় খেটে খাওয়া মানুষগুলো চরম কষ্টে দিন কাটাচ্ছেন। মানুষের কষ্ট লাগব করার জন্য বিগত দিনের ন্যায় ছন্দু মিয়া সরকার ফাউন্ডেশনের অর্থ্যায়নে শীতবস্ত্র,শিক্ষার্থীদের শিক্ষা উপকর বিতরন,মেধাবীদের শিক্ষার্থীদের উচ্চ শিক্ষার জন্য ফান্ডগঠন,করোনায় মোকাবেলায় বাশঁগাড়ী ছন্দু মিয়া সরকার ফাউন্ডেশনের অফিস থেকে দেশের বিভিন্ন জেলাসহ নরসিংদী জেলার রায়পুরা উপজেলা বিভিন্ন স্থানে হ্যান্ড স্যানিটাইজারসহ নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের শুভ উদ্ধোধন করেন ছন্দু মিয়া সরকার ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ফাইজুর রহমান সরকার বাছেদ। দেশের বিভিন্ন জেলাসহ নরসিংদী জেলার উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ত্রান সামগ্রী বিতরন কার্য্যক্রম অব্যাহত থাকবে। দেশের মানুষের হক আদায় করার জন্য ত্রান সামগ্রী দিতে হবে। ত্রান বিতরন প্রচারের জন্য নয়,মানুষের উপকার করতে হবে। অনেক মানুষ দিনের বেলা লাইনে দাড়িয়ে অনেকে ত্রান সহায়তা নিতে লজ্জাবোধ করেন। তাই রাতের বেলা এই খাদ্য ত্রান সামগ্রী বিতরণ করতে হবে। মানুষের পাশে দাড়াতে হবে