নোয়াখালীতে ৫ ভরি স্বর্নলংকার সহ চোরের ৪ সদস্য গ্রেফতার

প্রকাশিত: ২:২৬ পূর্বাহ্ণ , ডিসেম্বর ২১, ২০২০
বেগমগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ চৌমুহনী পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত চোরের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার সহ ৫ ভরি স্বর্নলংকার উদ্ধার করেছে পুলিশ।
রবিবার ২০ শে ডিসেম্বর নোয়াখালী পুলিশ সুপার মোঃ আলমগীর হোসেন ও বেগমগঞ্জ মডেল থানার (ওসি)মোহাম্মদ কামরুজ্জামান সিকদারের নেতৃত্বে, এস আই ফিরোজ সঙ্গীয় অফিসার ফোর্স সঙ্গে নিয়ে অভিযান চালিয়ে,চৌমুহানী পৌর এলাকার বিভিন্ন স্থান থেকে অভিযুক্ত চোরের সদস্যদের কাছ থেকে জব্দ করা হয়, ২ জোড়া কানের দুল,২ টি স্বর্নের ভালা, ৪ টি স্বর্নের আংটি,২ টি স্বর্নের চেইন সহ মোট ৫ ভরি স্বর্নালংকার ও একটি মোবাইল সেট উদ্ধার ও জব্দ করা হয়েছে।
গ্রেফতার কৃত চোরের সদস্যরা হলেন,করিম পুরের মৃত মনির হোসেন ছেলে মামুন(২০)মোঃ আবুল কালামের ছেলে মোরশেদ আলম(৩০)মোঃ রফিক উল‍্যার ছেলে শহীদ উল্যাহ অরুপে সাদ্দাম(২৮) এবং মোঃ মাসুদের ছেলে মহিউদ্দিন হ্দয় (২৩) সর্ব সাং বেগমগঞ্জ থানাধীন গনিপুর।
মামলার বিবরণে জানা গেছে,বেগমগঞ্জের অনন্তপুর গ্রামের মৃত গোলাম মোস্তফার ছেলে মোঃ আব্দুর রহিম(৪৫)হাজির হয়ে মামলা নং- ৩০-১২/২০২০ ইং অজ্ঞাত নামা চোরের বিরুদ্ধে ৪৫৭/৩৮০ ধারা দিয়ে একটি মামলা রুজু করেন।বাদী মোঃআব্দুর রহিমের বসত বাড়িতে ১৯ শে ডিসেম্বর দিবাগত রাতে টয়লেটের ব্যন্টিলেটর ভেঙ্গে ঘরে প্রবেশ করে।
এ সময় আলমারিতে থাকা নগদ ২৫ হাজার টাকা সহ ৭ ভরি স্বর্নালংকার ও একটি মোবাইল সেট চুরি করিয়া নিয়ে যায়।
এ বিষয়ে বেগমগঞ্জ থানার (ওসি)মোহাম্মদ কামরুজ্জামান শিকদার বলেন,নোয়াখালী পুলিশ সুপার মোঃআলমগীর হোসেনের নির্দেশনা অনুযায়ী,বাদীর অভিযোগের প্রেক্ষিতে বেগমগঞ্জ মডেল থানায় মামলা রুজু হওয়ার  ২৪ ঘন্টার মধ্যেই প্রকৃত চোরদের সনাক্ত ক্রমে তাদের  গ্রেপ্তারসহ  চোরাইকৃত স্বর্নালংকার উদ্ধার করা হয়।
গ্রেপ্তারকৃত চোরদের বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে এবং এ মামলা তদন্তকারী হিসেবে বেগমগঞ্জ মডেল থানার এস আই ফিরোজ আহমেদ নিয়োজিত রয়েছেন বলে জানা গেছে।