রাজাপুরে জনকল্যানে ব্যাক্তি খরচে কাঁচা রাস্তা নির্মানের উদ্ধোধন

প্রকাশিত: ৪:১৯ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ২৬, ২০২০

ঝালকাঠির রাজাপুরে জনদূর্ভোগ লাঘবে মানুষের কল্যানে একের পর এক কাজ করে ব্যাপক আলোচনায় রয়েছেন জনপ্রতিনিধি তরিকুল ইসলাম তারেক। করনা কালের ক্লান্তি লগ্ন থেকে শুরু করে মানুষের মাঝে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে তিনি জয় করেছেন সাধারণ মানুষের মন।ইতি মধ্যেই তিনি জনদূর্ভোগ লাঘবে ব্যাক্তি খরচে ৬ টিরও বেশি কাঁচা রাস্তা সংস্কার করেছেন। উপজেলার মঠবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ’র সাধারণ সম্পাদক এবং সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও ৬ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মো: তরিকুল ইসলাম তারেক নিজের অর্থায়নে জনদূর্ভোগ লাঘবে একের পর এক জনকল্যান মূলক কাজ করে যাচ্ছেন। ২৬ অক্টোবার সোমবার সকাল ১০ ঘটিকার সময় মঠবাড়ী ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের বদনিকাঠি মাতয়ারা বেগমের বাড়ীর সামনে থেকে শুরু করে প্রায় ১ কিলোমিটার কাঁচা রাস্তা নির্মান কাজের শুভ উদ্বোধন করা হয় ফিতা কেটে।বাগান বাড়ী ও খালের পাড়ে খনাখন্দে ভরা কাঁচা রাস্তাটি দিয়ে প্রতিদিন প্রায় হাজারো মানুষ চলাচল করে।এলাকার মানুষের ডাকে সাড়া দিয়ে নিজ খরচে তিনি রাস্তাটি সংস্কারের কাজ শুরু করেছেন।এমন মহতী উদ্দোগের জন্য মানুষের মুখে আলোচনায় ভাসছেন তারেক।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মো:জামাল হোসেন মৃধা,উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি মাহমুদুল হাসান,রশিদ খান,মাতয়ারা বেগম,শাহ আলম খান,ফিরোজ খান,বাবুল,মোশারেফ সহ স্থানীয় ব্যাক্তিবর্গ ও উপজেলার নেতাকর্মীরা।

স্থানীয়রা তাদের বক্তাব্যে বলেন,এই রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে আমাদের খুব কস্ট হতো।জোয়ারে রাস্তাটিতে হাটু পযর্ন্ত পানি থাকে।আমাদের বাচ্চাদের স্কুলে যেতে খুব কস্ট হতো। তরিকুল ইসলাম তারেক এর আগেও মঠবাড়ী ইউনিয়নে জনকল্যানে অনেক কাজ করেছেন।৬ টিরও বেশি রাস্তা সংস্কার করেছেন।করোনা কালে তিনি আমাদের ঘরে খাদ্য পৌছে দিয়েছেন।তিনি আমাদের ইউনিয়ন বাসীর কল্যানে তার নিজের অর্থদিয়ে নিরলশ ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাহমুদ হাসান বলেন,তারেক ভাই জনদূর্ভোগ লাঘবে ইতি মধ্যেই ৬টির ও বেশি খনাখন্দে ভরা কাঁচা রাস্তা সংস্কার করেছেন।আমি ব্যাক্তিগত ভাবে কাউকে সহযোগিতার জন্য তাকে বললে সে সাথে সাথে তাকে সহযোগিতা করতেন।আমরা চাই সে চেয়ারম্যান হয়ে আমাদের মাঝে আসুক।

তরিকুল ইসলাম তারেক বলেন,আমার প্রিয় অভিবাবক সাবেক সফল শিল্প ও খাদ্য মন্ত্রী ও ১৪ দলের মূখপাত্র ও সমন্ময়ক জননেতা আলহাজ্ব আমির হোসেন আমু সাহেবের নির্দেশনা অনুযায়ি মঠবাড়ী ইউনিয়নে আমি উন্নয়ন মূলক কাজে অংশগ্রহন করি।