আজ খুলছে রাসূলুল্লাহ (সা.) রওজা মোবারক

প্রকাশিত: ১:৩৩ অপরাহ্ণ , অক্টোবর ১৮, ২০২০

জিয়ারতকারীদের জন্য আজ রোববার থেকে খুলে দেয়া হচ্ছে মদিনায় হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর রওজা মোবারক। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে দীর্ঘ ৭ মাস পর ধর্মপ্রাণ মানুষ পবিত্র মদিনা মনোয়ারার রওজা মোবারকে সালাম পেশ করতে পারবেন। 

সৌদি আরবের হজবিষয়ক মন্ত্রী মোহাম্মদ বেনতেন জানান, ১ রবিউল আউয়াল থেকে ওমরাহ’র নিবন্ধনের জন্য নির্দিষ্ট অ্যাপ ‘ইতামারনা’য় নিবন্ধন করে মদিনার রওজা মোবারক জিয়ারত করা যাবে।

বৈশ্বিক মহামারি করোনার শুরুর দিকে সৌদি আরবের সব মসজিদ বন্ধ করে দেওয়ার পর গত ৩১ মে থেকে মসজিদে নববী খুলে দেওয়া হলেও পুরাতন মসজিদ ও রিয়াজুল জান্নাতে নামাজ এবং রওজা শরীফের জিয়ারত স্থগিত ছিল। এখন মুসল্লিরা ‘ইতামারনা’ অ্যাপে নিবন্ধন করে নির্দিষ্ট গেট দিয়ে রওজা শরীফে প্রবেশ করতে পারবেন।

রওজা শরীফে সালাম পেশের জন্য বাব আস সালাম (গেট নং-১) দিয়ে পুরুষরা প্রবেশ করবেন। আর রিয়াজুল জান্নাতে নামাজ আদায়ের জন্য বাবে বিলাল (গেট নং-৩৮) দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। অন্যদিকে মহিলারা বাবে উসমান (গেট নং-২৪) দিয়ে প্রবেশ করে নামাজ আদায় ও রওজায় সালাম পেশ করতে পারবেন।

নিবন্ধনের সময় রিয়াজুল জান্নাতে নামাজ আদায় ও রওজায় সালাম পেশের সময় উল্লেখ করে দেওয়া হচ্ছে। একজন জিয়ারতকারী ৩০ মিনিট সময় পাবেন নামাজ আদায় ও জেয়ারত করার জন্য।

নিবন্ধন ছাড়া কাউকে রিয়াজুল জান্নাত ও রওজা শরীফে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। এছাড়া নিবন্ধনের সময় করোনা নেগেটিভ রিপোর্ট অবশ্যই জমা দিতে হবে।

অন্যদিকে, আজ ১৮ অক্টোবর থেকে মদিনার পুরোনো স্থাপনাসহ পুরো মসজিদটি সবার জন্য খুলে দেয়া হবে। এছাড়া মসজিদুল হারামে ৬০ হাজার মুসল্লি নামাজ পড়তে পারবেন।
আজ থেকে দ্বিতীয় ধাপের প্রবাসী ও সৌদি নাগরিকসহ আড়াই লাখ মুসল্লি ওমরাহ পালনের সুযোগ পাবেন। তবে আগামী ১ নভেম্বর থেকে তৃতীয় ধাপে সৌদির বাইরের দেশের নাগরিকরা ওমরাহ করার সুযোগ পাবেন। এ সময় প্রতিদিন ২০ হাজার মুসল্লি ওমরাহ পালন করতে পারবেন এবং মসজিদের ভেতরে ৬০ হাজার মুসল্লিকে নামাজ পড়ার অনুমতি দেওয়া হবে বলেও দেশটির ইংরেজি দৈনিক সৌদি গেজেটের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, করোনা পরবর্তী কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং নিয়ম ও শর্তপালন সাপেক্ষে গত ৪ অক্টোবর থেকে ১ম ধাপে ওমরাহ পালন শুরু হয়। ইতোমধ্যে প্রথম ব্যাচ নিয়মতান্ত্রিকভাবে ওমরাহ সম্পন্ন করেছেন।