করোনাভাইরাস

আক্রান্ত পুলিশের সংখ্যা ৪৫০০ ছাড়াল

প্রকাশিত: ১১:২৮ পূর্বাহ্ণ , মে ৩০, ২০২০

তবে তাদের মধ্যে এক হাজার ৫৬৩ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন, যা মোট আক্রান্তের ৩৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে শুক্রবার পর্যন্ত চার হাজার ৫০০ পুলিশ সদস্য করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে তাদের মধ্যে এক হাজার ৫৬৩ জন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেছেন।

পুলিশ সদরদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা এসব তথ্য জানান।

তিনি আরও বলেন, প্রতি তিনজন সংক্রমিত পুলিশ সদস্যের মধ্যে একজন পুরোপুরি সুস্থ হয়ে ওঠেছেন, যা মোট আক্রান্তের ৩৪ দশমিক ৩৯ শতাংশ।

পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ বলেছেন, অব্যাহত চেষ্টা এবং নির্দেশনার ফলে সংক্রমিত পুলিশের সুস্থতার হার সন্তোষজনক এবং তাদের মধ্যে নতুন সংক্রমণের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেয়েছে।

সাধারণ মানুষের পাশাপাশি ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করা সামনের সারির যোদ্ধা চিকিৎসক, নার্স, পুলিশ ও অন্যান্য বাহিনীর সদস্যরাও আক্রান্ত হচ্ছেন।

এদিকে, কোভিড-১৯ এ ১৫ পুলিশ সদস্য মারা গেছেন বলে পুলিশ সদরদপ্তর সূত্র জানিয়েছে।

সংক্রমিত পুলিশ সদস্যদের মধ্যে উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাও রয়েছেন।

সূত্র জানায়, ২৩ মে পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের মধ্যে অতিরিক্ত পুলিশ মহাপরিদর্শক, আট পুলিশ সুপার (এসপি), ১৯ অতিরিক্ত এসপি, ২০ সহকারী এসপি, নয় পরিদর্শক, ৩৮৬ উপ-পরিদর্শক (এসআই) এবং ৭৮১ সহকারী এসআই রয়েছেন।

বাংলাদেশ পুলিশ, সশস্ত্র বাহিনী এবং র‌্যাবসহ অন্যান্য সংস্থার সদস্যরা সারা দেশে সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে যৌথভাবে কাজ করছেন।

আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর) জানিয়েছে, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত সশস্ত্র বাহিনীর কর্মরত, সাবেক এবং তাদের পরিবারের ৩৪৫ সদস্যকে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে, খারাপ হতে থাকা পরিস্থিতি সামাল দিলে বাংলাদেশ পুলিশ সম্প্রতি করোনাভাইরাস আক্রান্ত বাহিনীর সদস্যদের চিকিৎসার জন্য রাজধানীর ২৫০ শয্যার ইমপালস হাসপাতাল ভাড়া করেছে।

বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত ৪২ হাজার ৮৪৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত এবং ৫৮২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে, সরকার ৩০ মে’র পরে চলমান সাধারণ ছুটি না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

অন্যদিকে, করোনাভাইরাস সংক্রমণের উচ্চ ঝুঁকির মধ্যে হাজার হাজার মানুষ তাদের গ্রামের বাড়িতে ঈদুল ফিতর উদযাপন শেষে রাজধানীতে প্রবেশ শুরু করেছে।