রামগড়ে বাগান মালিকের কাছে ইউপিডিএফের চাঁদা দাবি, প্রতিরোধের মুখে ফাঁকা গুলি ছুড়ে পলায়ন।

বাহার উদ্দিন বাহার উদ্দিন

রামগড় প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১০:০১ অপরাহ্ণ , মে ২৮, ২০২০

রামগড়ে বাগান মালিকের কাছে ইউপিডিএফের সদস্যরা চাঁদা দাবী করলে জনগনের প্রতিরোধের মুখে ফাঁকা গুলিবর্ষণ করে পালিয়ে যায়। ২৮ শে মে বৃহস্পতিবার খাগড়াছড়ির রামগড়ে পাহাড়ের আঞ্চলিক সশস্ত্র সংগঠন ইউপিডিএফের সশন্ত্র সন্ত্রাসী দল কর্তৃক এক বাঙালি বাগান মালিকের কাছে চাঁদা চাইতে এসে স্থানীয়দের প্রতিরোধের মুখে ফাঁকা গুলি ছুড়তে ছুড়তে সেখান থেকে পালিয়ে যায় সন্ত্রাসীরা। ২৮শে মে বৃহস্পতিবার বিকেল আনুমানিক সাড়ে তিনটার দিকে উপজেলার ২নং পাতাছড়া ইউনিয়নের পাকলা পাড়া নামক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, বিকেলে পাকলপাড়ায় স্থানীয় বাঙালি কৃষক মোঃ শাহীন মিয়ার (৩৫) কাঁঠাল বাগানে একটি মোটরসাইকেল যোগে ৩জন ইউপিডিএফের সশস্ত্র সদস্য চাঁদা সংগ্রহের জন্য আসে। এসময় মোঃ শাহীন স্থানীয়দের সহযোগিতা নিয়ে সন্ত্রাসীদের ধাওয়া করে। ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে তাৎক্ষনিক স্থানীয়দের প্রতিরোধের মুখে ইউপিডিএফ সন্ত্রাসীরা ২রাউন্ড পিস্তলের ফাঁকা গুলি ছুড়ে এলাকায় আতঙ্ক সৃষ্টি করে। তাদের ব্যবহৃত মোটরসাইকেল (চট্র মেট্রো – হ ১৬-০৯৫৩) ফেলে রেখেই সেখান থেকে পালিয়ে যায়।
খবর পেয়ে সিন্ধুকছড়ি সাবজোন থেকে সেনা সদস্যরা ও নাকাপা পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পরে নিরাপত্তাবাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থল থেকে ২রাউন্ড গুলির খোসা ও সন্ত্রাসীদের ফেলে যাওয়া মোটরসাইকেলটি উদ্ধার করে। ঘটনার পরে এলাকায় আতন্ক বিরাজ করছে বলে স্হানীয়রা জানায়।
রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সামসুজ্জামান জানান, ঘটনার পরপরই সেনাবাহিনীর সাথে পুলিশও ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিজেদের নিয়ন্ত্রনে নিয়েছে। জব্দকৃত মোটরসাইকেল ও গুলির খোসা থানায় জমা করা হয়েছে। রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি। তবে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।