রাজধানীর কোথায় কতজন করোনা আক্রান্ত

প্রকাশিত: ১২:০০ অপরাহ্ণ , মে ২৮, ২০২০

করোনা সংক্রমণে সবচেয়ে বেশি শনাক্ত হয়েছেন ঢাকাবাসী। মৃত্যুর হারও এখানে বেশি। বুধবার জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) দেওয়া তথ্যে জানা যায়, এ পর্যন্ত দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩৮ হাজার ২৯২ জন। এর মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৫৪৪ জন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে ঢাকায়, যে সংখ্যাটি ১৪ হাজার ৩৪৮-এ দাঁড়িয়েছে।

রাজধানীর প্রায় সব এলাকাতেই কম-বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হয়েছেন মিরপুর ও সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দারা। বেশ কিছু এলাকা করোনার হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে। আইইডিসিআর এর তথ্যে, এখন পর্যন্ত রাজধানীতে সবচেয়ে বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন মিরপুর ১, ২, ৬, ১০, ১১, ১২, ১৩, ১৪, পল্লবী ও পীরেরবাগে। এখানেই মোট ৬১৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন। এরপর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ আক্রান্ত হয়েছে মহাখালীতে, ৩৫৬ জন। তৃতীয় সর্বোচ্চ করোনা রোগী মিলেছে মুগদায়, ২৯৫ জন। যাত্রাবাড়ীতে ৩১৫ জন করোনা রোগী মিলেছে, রাজারবাগে আছেন ২১৩ জন, মোহাম্মদপুরে ২৮৮ জন এবং কাকরাইলে শনাক্ত হয়েছেন ২৯৮ জন।

রাজধানীর অন্যান্য অংশে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যার দিকে তাকালে দেখা যায়- আদাবরে আছেন ৪৬ জন, আঁগারগাওয়ে ৮৫ জন, আজিমপুরে ৬২ জন, বাবু বাজারে ১৬১ জন, বাড্ডায় ১২৯ জন, বনানীতে ৭৪ জন, বংশালে ৯৯ জন, বাসাবোতে ৮৯ জন, বসুন্ধরায় ৫২ জন, ক্যান্টনম্যান্ট এলাকায় ১৭ জন, চাংখারপুলে ৪৫ জন, চকবাজারে ৭৯ জন, ধানমন্ডিতে ১৭২ জন, ইস্কাটনে ৫২ জন, ফার্মগেটে ৪৮ জন, গেন্ডারিয়ায় ১০৯ জন, গ্রীনরোডে ৫০ জন, গুলশানে ৯৪ জন, হাজারীবাগে ৮০ জন, জুরাইনে ৫৩ জন, কল্যাণপুরে ৩৮ জন, চক বাজারে ৭৯ জন, কামরাঙ্গীর চরে ৫৩ জন, খিলগাঁওয়ে ১৫১ জন এবং কোতোয়ালিতে ২৯ জন শনাক্ত হয়েছেন।