বাংলাদেশকে ২৮০০ কোটি টাকা দেবে জাপান

প্রকাশিত: ১২:৫৪ অপরাহ্ণ , আগস্ট ৬, ২০২০

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বাংলাদেশকে দুই হাজার ৮০৬ কোটি টাকা (৩৩ কোটি মার্কিন ডলার) ঋণ সহযোগিতা দিচ্ছে জাপান সরকার। জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে ফোনালাপে এ কথা জানান।

বুধবার দুপুরে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে এই ফোনালাপ হয়। জাপান ও বাংলাদেশের করোনা পরিস্থিতি, অর্থনৈতিক ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন নিয়ে টেলিফোনে আলাপ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে। সেই আলাপে এই সহযোগিতার আশ্বাস দেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী।

এই সময়ে শিনজো আবে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে জানান যে, করোনাভাইরাসের অভিঘাত মোকাবিলায় বাংলাদেশকে ৩ হাজার ৫০০ বিলিয়ন জাপানি ইয়েন (প্রায় ২ হাজার ৮০০ কোটি টাকা) আর্থিক সহযোগিতা দেওয়া সংক্রান্ত একটি বিল জাপানের সংসদে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

বন্ধুপ্রতীম দুই দেশের দুই নেতার কথোপকথন প্রায় ২৫ মিনিট স্থায়ী হয় বলে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব এহসানুল করিম।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দুই প্রধানমন্ত্রীর মূল আলোচনায় দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক অর্থনৈতিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার বিষয়গুলো উঠে আসে। জাপান সরকারের অর্থায়নে চলমান প্রকল্পগুলোর অগ্রগতি সম্পর্কে দুই নেতা আলোচনা করেন। বাংলাদেশের অবকাঠামো উন্নয়নে আরও জাপানি বিনিয়োগের জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাপানের প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করেন। তিনি চলমান রোহিঙ্গা সংকট সম্পর্কে শিনজো আবেকে অবহিত করেন এবং এ সংকট উত্তরণে জাপান সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন। শিনজো আবে মিয়ানমারের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলবেন বলে আশ্বাস দেন।

এদিকে জাপানের রাষ্ট্রদূত ইতো নাওকি ও অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব ফাতিমা ইয়াসমিন গতকাল বাংলাদেশকে ‘সরকারি উন্নয়ন সহায়তা (ওডিএ)’ হিসেবে ‘কোভিড-১৯ দুর্যোগকালীন জরুরি সহায়তা’ ঋণবিষয়ক চিঠি বিনিময় করেন। চিঠিতে বলা হয়, জাপানের আন্তর্জাতিক সহযোগিতা সংস্থার (জাইকা) মাধ্যমে ঋণ আকারে জাপান সরকার বাংলাদেশকে তিন হাজার ৫০০ কোটি জাপানি ইয়েন সহায়তা দেবে। এই ঋণের শর্ত বেশ সহজ। ঋণের সুদের হার ০.০১ শতাংশ। চার বছরের ‘গ্রেস’ পিরিয়ডের পর ১১ বছরের মধ্যে ওই ঋণ পরিশোধের সময়সীমা ধরা হয়েছে।

প্রেসসচিব জানান, দুই নেতা টেলিফোনে কুশলাদি বিনিময় করেন এবং দুই দেশের কোভিড-১৯ পরিস্থিতি সম্পর্কে একে-অপরকে অবহিত করেন। জাপান সরকার বাংলাদেশকে কোভিড সংক্রমণ প্রতিরোধক ইকুইপমেন্টস-পিপিই, মাস্ক, গাউন, গগলস ইত্যাদি দেওয়ার জন্য শিনজো আবেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বাতিল হওয়া ‘২০২০ গ্রীষ্মকালীন অলিম্পিক’ আগামী বছর জাপানে যথাসময়ে অনুষ্ঠিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।