নিউজ রুম এডিটর, নিউজ৭১অনলাইন

চট্টগ্রাম-৪: গ্রুপিংয়ে আওয়ামী লীগ বিএনপিতে একক প্রার্থী

শহীদুল্লাহ শাহরিয়ার:সীতাকুণ্ড উপজেলাসহ চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৯ ও ১০ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে চট্টগ্রাম-৪ আসনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বঙ্গোপসাগরের তীর ঘেঁষে গড়ে ওঠা এলাকাটি শিল্প এলাকা হিসেবে পরিচিত। ২ লাখ ৯১ হাজার ৬১৪ ভোটার অধ্যুষিত এ আসনে আ’লীগের অন্তত ৪ জন প্রার্থী মনোনয়নের জন্য দৌড়-ঝাঁপ করছেন। বর্তমান এমপি দিদারুল আলম ছাড়াও উপজেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া, সমাজসেবক ও ব্যবসায়ী মোহাম্মদ ইমরান এবং উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আল মামুন ভোটের মাঠে সক্রিয়। এদিক থেকে সুবিধাজনক অবস্থানে বিএনপি।


দলটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব কারাবন্দি লায়ন আসলাম চৌধুরীই এ আসনে দলের একক প্রার্থী। ব্যাংক ঋণে দেউলিয়া হওয়া বা অন্য কারণে যদি তিনি নির্বাচন করতে না পারেন সে ক্ষেত্রে অন্য কেউ মনোনয়ন চাইতে পারেন। সাবেক এমপি প্রয়াত এলকে সিদ্দিকীর ভাই বিআই সিদ্দিকীর নাম শোনা যাচ্ছে।

জাতীয় পার্টির দিদারুল কবির চৌধুরী মনোনয়ন চাচ্ছেন। এ আসনে একক কোনো দলের নিরঙ্কুশ প্রভাব নেই। বিশেষ করে নব্বইয়ের পট পরিবর্তনের পর ১৯৯১ ও ২০০১ সালের ভোটে এ আসন থেকে এমপি হন বিএনপির এলকে সিদ্দিকী, ১৯৯৬ ও ২০০৮ সালের নির্বাচনে বিজয়ী হন আওয়ামী লীগের আবুল কাশেম মাস্টার। ২০০৮ সালের নির্বাচনে আবুল কাশেম ১ লাখ ৩৬ হাজার ২৯৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আসলাম চৌধুরী পেয়েছিলেন এক লাখ ১২ হাজার ৯৩০ ভোট। সবশেষ ২০১৪ সালে বিএনপিবিহীন ভোটে বিজয়ী হন আওয়ামী লীগের দিদারুল আলম।

আওয়ামী লীগ : ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ভোটের আগে সরকারবিরোধী আন্দোলনে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের এ সীতাকুণ্ড অংশেই সবচেয়ে বেশি জ্বালাও-পোড়াও হয়। অসংখ্য মানুষ পেট্রলবোমা সহিংসতায় শিকার হন। বিএনপি মনোনীত চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র এম মনজুর আলমের ভাতিজা দিদারুল আলম কিভাবে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেলেন তা আজও দলের নেতাকর্মীদের কাছে এক বিস্ময়! আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত না হওয়ায় দলের নেতাকর্মীদের অনেকেই তাকে মেনে নিতে পারেননি।

সাবেক এমপি আবুল কাশেমের ছেলে বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আল মামুনের সঙ্গে এমপির বিরোধের বিষয়টি মুখে মুখে। অভিযোগ রয়েছে- গ্রুপিংয়ের জেরেই সীতাকুণ্ডে আশানুরূপ উন্নয়ন হয়নি। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বর্তমান এমপি দিদারুল আলম ছাড়াও মনোনয়ন চাইছেন উপজেলা আ’লীগ সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সমাজসেবক মোহাম্মদ ইমরান এবং উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আল মামুন।

জানতে চাইলে দিদারুল আলম বলেন, আমি আওয়ামী লীগের রাজনীতি করতাম না ঠিকই কিন্তু আমার দাদা আবদুল হাকিম কন্ট্রাক্টর ছিলেন, তিনি উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের ফাউন্ডার ও আমৃত্যু সভাপতি। অতীতে আওয়ামী লীগের তৃণমূল নেতারা এমপির কাছে মূল্যায়ন পাননি। আমি তাদের মূল্যায়ন করছি। গ্র“পিং-কোন্দলের কারণে এলাকার উন্নয়ন হয়নি বলে যে অভিযোগ উঠেছে তা ঠিক নয়।

তিনি বলেন, বিএনপি-জামায়াত অধ্যুষিত সীতাকুণ্ডে দুর্দিন নেমে এসেছিল। সরকারি দলের নাম ভাঙিয়ে অনেকে শিল্প-কারখানায় চাঁদাবাজি করত। গত নির্বাচন, যুদ্ধাপরাধীদের মৃত্যুদণ্ডের বিরোধিতা করে আন্দোলনের নামে বিএনপি-জামায়াত নাশকতায় অস্থির হয়ে উঠেছিল সীতাকুণ্ড। জঙ্গিরাও আস্তানা গেড়েছিল এলাকায়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মনোনয়ন দিয়েছিলেন ২০১৪ সালে। এমপি হওয়ার পর থেকেই সীতাকুণ্ডের উন্নয়নে নিজেকে আত্মনিয়োগ করি। ৫ বছরে ৫০০ কোটি টাকার উন্নয়ন করেছি। ভোকেশনাল কলেজ প্রতিষ্ঠা, ‘বাঁশবাড়িয়া-আকিলপুর বেড়িবাঁধ, মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স নির্মাণসহ অনেকে উন্নয়ন করেছি।

তিনি বলেন, ‘আমি নিজ খরচ-উদ্যোগেও অনেকে উন্নয়ন করেছি। প্রধানমন্ত্রী ও ভোটারদের আস্থা অর্জনের চেষ্টা করেছি। আশা করছি আগামী নির্বাচনে দল আমাকেই মনোনয়ন দেবে।’

আওয়ামী লীগের আরেক প্রার্থী আবদুল্লাহ আল বাকের ভূঁইয়া ২৫ বছর ধরে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্বে। এমপি আবুল কাশেম মাস্টারের ঘনিষ্ঠজন বাকের ভূঁইয়া উপজেলা চেয়ারম্যানও ছিলেন। বর্তমানে এমপি-উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরোধের কারণে দলের বিকল্প প্রার্থী হিসেবে তিনি এখন মাঠে। জানতে চাইলে বাকের ভূঁইয়া যুগান্তরকে বলেন, গোটা উপজেলায় আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের সব কমিটি আমার হাতে গড়া। বিপুল ভোটে উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলাম। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির ভোটের আগের জ্বালাও-পোড়াওয়ের আন্দোলন মোকাবেলা করার পরও দুর্ভাগ্য আমার যে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেননি এমন একজন ‘নাজিল’ হলেন। তার সঙ্গে উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আল মামুনের দ্বন্দ্ব প্রকাশ্য। আশা করছি বিকল্প হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বেছে নেবেন।’

এদিকে সম্প্রতি হঠাৎ সংবাদ সম্মেলন করে নিজেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ঘোষণা দিয়ে আলোচনায় ব্যবসায়ী মোহাম্মদ ইমরান। তিনি ঘোষণা করেন, ‘আমার বড় ভাই মোহাম্মদ ইকবাল বঙ্গবন্ধু কন্যা ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্নেহধন্য ব্যক্তিত্ব। যাকে নেত্রী সীতাকুণ্ড থেকে ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালে প্রার্থী হওয়ার অনুরোধ করেছিলেন। পারিবারিক কারণে তিনি অনীহা প্রকাশ করেন। আমার অগ্রজ সহোদর ইমতিয়াজ ইকরাম ’৯০-এর দশকে সীতাকুণ্ড উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলেন। আমি ব্যবসা নয়, জনসেবা করার জন্যই মনোনয়ন চাইছি। মনোনয়ন চাওয়ার অধিকার সবারই আছে। পদ-পদবিতে আমি না থাকলেও ছাত্রজীবন থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাসী। পারিবারিকভাবে সমাজসেবায় নিয়োজিত। আশা করি প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে মনোনয়ন দেবেন।’ উ

ত্তর জেলা যুবলীগের সভাপতি উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম আল মামুন  বলেন, ‘আমার বাবা ৫০ বছর ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করেছেন। দু’বার এমপি ছিলেন। সর্বত্রই তার উন্নয়নের ছোঁয়া লেগে আছে। আমি পিতার উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষার চেষ্টা করছি। উপজেলা চেয়ারম্যান হওয়ার পর কোটি কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ করেছি। প্রায় আড়াইশ’ সড়কের উন্নয়ন করেছি। আমি মনোনয়ন প্রত্যাশী।

বিএনপি : সীতাকুণ্ডে বিএনপির একক প্রার্থী দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও চট্টগ্রাম উত্তর জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আসলাম চৌধুরী। তার বিরুদ্ধে ৬৮টি মামলা রয়েছে। ভারতে ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা মোসাদ কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠকের অভিযোগে তিনি গ্রেফতার হয়ে জেলে আছেন ৩ বছর ধরে।

সীতাকুণ্ড উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব জহুরুল আলম  বলেন, আসলাম বিএনপির একক প্রার্থী। তিনি বিএনপির পার্লামেন্টারি বোর্ডেরও সদস্য। চট্টগ্রামের অন্য আসনে মনোনয়নের ক্ষেত্রেও তার সুপারিশ লাগবে। তিনিই দলীয় মনোনয়ন পাবেন। প্রয়োজনে জেলে থেকে নির্বাচন করবেন। তার বিকল্প চিন্তা দলের মধ্যে নেই।

জাতীয় পার্টি : দলের যুগ্ম মহাসচিব দিদারুল কবির চৌধুরী দলীয় মনোনয়ন চাইবেন। জোটগত নির্বাচন হলে সে ক্ষেত্রে এ আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেয়ার জন্য বলা হবে। বর্তমান এমপির রাজনৈতিক দুর্বলতা ও দলীয় গ্রুপিংয়ের কারণে আসনটি জাতীয় পার্টিকে ছেড়ে দেয়া হতে পারে বলেও আশা করছেন দলের সাধারণ নেতাকর্মীরা। দিদারুল কবির যুগান্তরকে বলেন, জোটগত নির্বাচন হলে সে ক্ষেত্রে জাতীয় পার্টি সীতাকুণ্ড আসনটি চাইবে। যদি জাতীয় পার্টি এককভাবে নির্বাচন করে তবে সীতাকুণ্ড থেকে তিনি নিজেই নির্বাচন করবেন। দল তাকেই মনোনয়ন দেবে।      যুগান্তর 

23.10.2018 | 10:55 AM | সর্বমোট ১২৯ বার পঠিত

চট্টগ্রাম-৪: গ্রুপিংয়ে আওয়ামী লীগ বিএনপিতে একক প্রার্থী" data-width="100%" data-numposts="5" data-colorscheme="light">

জাতীয়

আড়াই লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী পাচ্ছেন পরিচয়পত্র

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নিপীড়নে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ১০ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গার মধ্যে আড়াই লাখ রোহিঙ্গা নাগরিক পরিচয়পত্র পাচ্ছেন।জাতিসংঘ জানিয়েছেন, গতকাল শুক্রবার...... বিস্তারিত

18.05.2019 | 05:06 PM


রাজধানী

চট্টগ্রাম

স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে সাংবাদিকদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ

স্বপ্নের বাংলাদেশ গড়তে সাংবাদিকদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, যে ধরনের সমাজ ও রাষ্ট্র...... বিস্তারিত

18.05.2019 | 04:47 PM

ফেইসবুকে নিউজ ৭১ অনলাইন

ধর্ম

তাকওয়া অর্জন ও কুরআন নাজিলের মাস "মাহে রমাযান"মুফতি আরিফ মাহমুদ হাবিবী

.তাকওয়া অর্জন ও কুরআন নাজিলের মাস "মাহে রমাযান"আত্মিক এবং শারীরিক উন্নতি সাধনের এক অনন্য প্রশিক্ষণ হচ্ছে সিয়াম। মানবদেহের চাহিদা অনেক...... বিস্তারিত

16.05.2019 | 09:06 AM

বিনোদন

গান আর মডেলিংয়ে কাঙালিনী সুফিয়া

‘ওরে ও প্রেমিক বাঙাল/ হইস না তুই রূপের কাঙাল’- এমনই কথার একটি গানে কণ্ঠ দেবার পাশাপাশি মডেল হয়েছেন জনপ্রিয় লোকসঙ্গীত...... বিস্তারিত

18.05.2019 | 04:58 PM

সর্বশেষ সংবাদ

সব পোস্ট

English News

সম্পাদকীয়

বিশেষ প্রতিবেদন

মানুষ মানুষের জন্য

আমরা শোকাহত

অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

অন্যরকম

ভিডিওতে ৭১এর মুক্তিযোদ্ধের ইতিহাস

ভিডিও সংবাদ