নিউজ রুম এডিটর, নিউজ৭১অনলাইন

দাকোপে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নদী খননে দূর্নীতির অভিযোগ

দাকোপ(খুলনা)প্রতিনিধিঃ খুলনা জেলাধীন দাকোপ উপজেলার কৈলাশগঞ্জ ইউপি চেয়ারম্যান মিহির মন্ডলের বিরুদ্ধে নদী খনন কাজে ব্যাপক দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। কেটে উজাড় করা হচ্ছে সামাজিক বনায়নের গাছ।
প্রতিকার চেয়ে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এবং দাকোপ প্রেসক্লাব বরাবওে ইউপি সদস্য ও এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে আবেদন করা হয়েছে। আওয়ামী নেতা উক্ত দাপুটে চেয়ারম্যান সাংবাদিকদের সামনে দম্ভ করে বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ হয়েছে, পত্র পত্রিকায় তা লেখাও হয়েছে তাতে কিচ্ছু এসে যায় না। 
এলাকাবাসী এবং ৮ জন ইউপি সদস্যের স্বাক্ষর সম্বলিত আবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে, কৈলাশগঞ্জ ইউনিয়নের অভ্যন্তরে চড়া নদী  ২০১৫-২০১৬ অর্থ বছরে ক্ষুদ্র পানি সেচ প্রকল্পের আওতায় এলজিইডি প্রণীত কমিটি ও ইউপি চেয়ারম্যানের তত্বাবধানে নাম মাত্র খনন করা হয়। এতে চেয়ারম্যান ব্যাপক অর্থ আত্মসাৎ করেন। এর ঠিক পরবর্তি অর্থ বছরে ২০১৬-২০১৭ -এর এপ্রিল মাসে চীনা ঠিকাদারের অধিনে একই নদী সুন্দরবনের দিক থেকে স্থানীয় শ্রমিকদের মাধ্যমে খনন কাজ শুরু হয় এবং দু’পারের কোনো গাছ-পালা না কেটে প্রায় ৪/৫ শত ফুট নদী খনন  সম্পন্ন হয়। তখন চেয়ারম্যান জোরপূর্বক শ্রমিকদের কাজ বন্ধ করে দেন এবং চীনা ঠিকাদারদের সাথে যোগাযোগ করে নিজেই এক্সেভেটর মেশিন দিয়ে প্রায় তিন কিলোমিটার নদী খনন করেন। উক্ত খনন কাজ করার সময় দু’পারের সরকারী, এবং সামাজিক বনায়নের হাজার হাজার গাছ কেটে ফেলা হয়। বর্ষা মৌসুম এলে কাজটি বন্ধ রাখা হয়। অভিযোগ মতে গতবার যেখানে এক্সেভেটর মেশিন দিয়ে খাল খনন করা হয়েছিল সেখানে অনেক জায়গায় দু’পার ধসে গিয়ে রাস্তার ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বর্তমান বছরে আবারও চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে  চড়া নদীর বাদ-বাঁকি অংশ এক্সেভেটর মেশিন দিয়ে খনন কাজ শুরু হয়েছে। 
সরেজমিনে দেখাযায়, চড়া নদী খনন কাজের কোনো সাইনবোর্ড নেই। এক্সাভেটর দিয়ে খনন কাজ চলছে। আর খনন কাজ সহজ করার জন্য সামাজিক বনায়নের গাছ কেটে ফেলা হচ্ছে। যতটুকু নদী খনন করা হয়েছে তার মাটি নদীর ভিতরে দু’পাশে রাখা হচ্ছে। স্থানীয়দের বক্তব্য বৃষ্টি এলেই মাটি সরে গিয়ে নদী আবার ভরাট হয়ে যাবে।
ওয়ার্কাস পার্টির নেতা গৌরাঙ্গ প্রসাদ রায় বলেন, নদী খনননের কাজ বিশ্ব ব্যাংকের টাকায় চায়না ঠিকাদার করবে এটাই আমরা শুনেছি কিন্তু ইউপি চেয়ারম্যান কিভাবে কাজটি পেল সেটি এখনও জানতে পারলাম না। শ্রমিক দিয়ে নদী খনন হলে গাছ কাটা লাগত না এবং নদীর মাটি রাস্তার দু’পাশে নেওয়া সম্ভব হত।
 চেয়ারম্যান মিহির মন্ডল বলেন, নদীর চরে সরকারী খাস জমিতে গাছ লাগানো হয়েছে। নদী খননের জন্য এ গাছ কেটে ফেলা হবে।   
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মারুফুল আলম বলেন, বিষয়টি সরেজমিনে দেখে এবং জেনে সঠিক পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

20.03.2018 | 10:03 AM | সর্বমোট ৬২১ বার পঠিত

দাকোপে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে নদী খননে দূর্নীতির অভিযোগ" data-width="100%" data-numposts="5" data-colorscheme="light">

জাতীয়

শীঘ্রই জাতীয় মেধাসম্পদ নীতি চূড়ান্ত হচ্ছে

মেধাসম্পদ সৃষ্টি ও সুরক্ষায় শিগগিরই জাতীয় মেধাসম্পদ নীতি চূড়ান্ত করা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু।তিনি বলেন, ‘বিষয়টি দীর্ঘদিন...... বিস্তারিত

26.04.2018 | 04:12 PM




রাজধানী

বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের নবনির্বাচিত কমিটির শ্রদ্ধা

স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ রহমানের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন মোহাম্মদপুর থানা ছাত্রলীগের নবনির্বাচিত কমিটির নেতারা।আজ ২৫ এপ্রিল ২০১৮ রোজ বুধবার...... বিস্তারিত

25.04.2018 | 10:31 PM


চট্টগ্রাম

ফেইসবুকে নিউজ ৭১ অনলাইন

ধর্ম

নব্য নাস্তিক মো: সোলায়মানের কঠিন শাস্তির দাবীতে মুসল্লিদের মানববন্ধন;এলাকায় চরম উত্তেজনা

নব্য নাস্তিক মো: সোলায়মানের কঠিন শাস্তির দাবীতে মুসল্লিদের মানববন্ধন;এলাকায় চরম উত্তেজনা ধার্মিক থেকে নাস্তিক; নামের সাথে ব্যবহৃত মুহাম্মাদ শব্দ কেটে...... বিস্তারিত

13.04.2018 | 03:59 PM

বিনোদন

সালমানের ময়নাতদন্তকারী চিকিৎসক ও ডোমকে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি

জনপ্রিয় চিত্রনায়ক সালমান শাহর লাশের ময়নাতদন্তকারী হায়দার আলী প্লাবো মেডিকেলের তৎকালীন চিকিৎসক ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ডোম রমেশ...... বিস্তারিত

26.04.2018 | 02:27 PM

সর্বশেষ সংবাদ

সব পোস্ট

English News

সম্পাদকীয়

বিশেষ প্রতিবেদন

মানুষ মানুষের জন্য

আমরা শোকাহত

অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

অন্যরকম

ভিডিওতে ৭১এর মুক্তিযোদ্ধের ইতিহাস

ভিডিও সংবাদ