নিউজ রুম এডিটর, নিউজ৭১অনলাইন

ক্যাসিনোর এই দিন, সেই দিন

সাহিদা সাম্য  লীনা ::
সেদিন ফেনী রাজাঝির দিঘীর পাড়ে বসে চা খাচ্ছি এক ভক্তের আহ্বাণে।  চা এর দোকানটা অনেকটা  পরিপাটি।আগে একটু নড়বড়ে ছিল। বসার জন্য সিমেন্ট বালু সহযোগে বেঞ্চ দেয়া হয়েছে। এখানে বসে চা খেতে দারুণ লাগতো। ভাঙ্গা, ভাঙ্গা একটু পুরনো গ্রামীণ আদলে ঘেষা টং এ বসে চা খাবার মজাই আলাদা! পাশে এক বুড়ো চা খায় নিবিষ্ট মনে।  চারদিকে শিক্ষিত দেখে মনে অনেক  জিজ্ঞাসা তার বোঝা গেল। ফেনী কলেজের  ইউনিফর্ম পরা এক ছাত্রকে  দেখে বলছে ওবা নাতি ক্যাসিনো কিয়া ? আইজ্জা ক’দিন ক্যাসিনো ক্যাসিনো কিয়া কেতেগেন কয় , মাইনছে  হইত্তেগদিন, হারাদিন কয় ? কিছে?  ছাত্র অনেক শব্দে  বোঝালো ক্যাসিনো সম্পর্কে। আমি আর আমার ভক্ত  শ্রোতা! এবার ছাত্র থামে । শুরু করলাম আমি,  চাচা বুড়োর পরিচয় সব জেনে। চাচা মিয়ার সাথে আমার সংলাপ যদিও ফেনীর ভাষায় ছিল; এখানে শুদ্ধ ভাষায় তুলে ধরলাম- আহা ,চাচা মিয়া জীবনে কখনো তাশ খেলেছেন? চাচা মিয়া বত্রিশ দাঁত বের করে হেসে হেসে জবাব দেয় হে মা, অনেক খেলছি । এতো তাশ খেলতাম যে, বাড়ি ফিরতে রাত হয়ে যেত। মা ঘরের দুয়াড়ের বাই ( দরজার বিশেষ এক ছিটকানি) দি সে কি পিটা দিতো !  এতো নেশা আছিলো দিনের বেলায়ও খেলতাম! চাচা মিয়া আবার বলে তো মা আমারে তাশ খেলার কথা কেন জিগ্যেশ করলে?  বুজতে পারছি ,ক্যাসিনো নিয়া তুমি কিছু বলবা। চাচা মিয়ার বুদ্ধি আছে বোঝা গেল। চাচা মিয়া এবার একটু নড়ে চড়ে আরাম মেরে বসে। গালটা কিছু জানা আর শিশুর মতো  সোহাগ নিয়ে উন্মুখ হয়ে আমার মুখের পানে তাকিয়ে। 
আমিও চাচার অবস্থা দেখে একটু সহযোগী হই ভঙ্গিমা অনুকরণে। বলি চাচা ক্যাসিনো হচ্ছে আপনাদের  দিনের সেই তাশ খেলার জায়গা। যেখানে রাতের আঁধারে বহু কিছু ঘটে!  বিভিন্ন ধরণের জুয়া,তাশ,বাজে আড্ডার জন্য মানুষ যে জায়গায় যায় সেটাই ক্যাসিনো। চাচা আপনাদের সময়ে কোথায় যেতেন?
 চাচা বললো মা দোকানের পিছনে কোন গোপন একটু জায়গা ,নদীর পাড়ে কারো মাচার তলায় আমরা এসব খেলতাম। হুম চাচা , ঠিক এই আধুনিক সময়ে মানুষ যেখানে গিয়ে এসব খেলে এটাকেই বলে ক্যাসিনো। কথা হচ্ছে আপনারা খেলতেন সামান্য পুঁজিতে বাজি ধরে। আর এখানে এখন খেলে বড় বড় লোকরা বিশাল টাকার অংকে।চাচার এবার চোখ কপালে! চোখে বিস্ময়ের ছায়া। মজা পেয়ে আবার শুরু করলাম । 
জানেন চাচা, আপনারা এতো বেশী উপভোগ করতে পারেননি। আপনারা দোকানের পিছনে অন্ধকার খুপড়িতে কিছুতেই আনন্দ  পেতেন না আরো বাড়তি কিছুর। আর এরা কতো কি ভোগ করে!  ক্যাসিনো খেলার নানা সরঞ্জাম , গোল চাকতির মতো,  হোটেল, রেস্টুরেন্ট,শপিংমল, বিদেশীদের আকর্ষণের জন্য নানা জিনিস,গানের ব্যবস্থা, আনন্দ ভ্রমণের জাহাজ,অন্যান্য খেলাধুলার ব্যবস্থা,কমেডি মানে কৌতুক করার ব্যবস্থা। 
চাচা বলে কি কও মা! এতো কিছু? হে চাচা শুধু এসব না, সুন্দরী নারীও এখানে ঘুরাফিরা করে। চাচা এবার লজ্জা পায়। লুঙ্গি গুছাতে, গুছাতে বলে কিয়া কও মা তুমি আমাকে?  দুস্টামি করিও না, তুমি মা আমার সাথে। আমি তোমার বাবার সমান। না চাচা, বেয়াদবি মাপ করেন, সত্যি আমি আপনার সাথে দুষ্টামি করছিনা। আমার কথাগুলো শুনে এই পর্বে ছাত্রগুলো উঠে গেল মুচকি হাসতে হাসতে। 
তো মা,  ক্যাসিনোর মানুষকে ধরতেছে কেন? বললাম চাচা ,ওই যে আপনি বললেন না আপনাদের দিনে তাশ খেলে গভীর রাতে বাড়ি ফিরলে আপনার মা ধরে পিটা দিতো। কেন পিটতো বলেন তো:  এটা যে অন্যায় ,সেজন্যই তো পিটতো ,তাই না? মনে করেন যত অপরাধ আছে এখানে তাই ঘটে ক্যাসিনোতে। টাকা উড়ে লক্ষ লক্ষ  ,মদ জুয়ায় একাকার অবস্থা। অনেকে নিঃস্ব হয়ে যায়! দেশী-বিদেশী গডফাদাররা জড়িত এতে। 
মন্ত্রি,এমপি, মেয়ররা এই সবে বেশী এডিক্টেড! আড়ালে বিভিন্ন অবৈধ কাজ চলে,  এগুলো তো বড় দুর্নীতি। চাঁদাবাজি, সন্ত্রাসি যত কান্ড, টেন্ডারবাজি, মাদকব্যাপারি সবার আড্ডাখানা এসব ক্যাসিনোতে। আমাদের ফেনী হতে শুরু করে দেশের সব জায়গায়ই রয়েছে ছোট, বড় ক্যাসিনো। তাই এবার সরকার কঠোর এই অভিযানের উদ্যোগ নিয়েছে। এটা এক ধরণের অবৈধ আর বৈষম্য সমাজে। চাচা হা করে আছে, চা দোকানদারকে বলে এরে, আকবর আরেক কাপ চা দে । চাচা আবার বলে, তো মা, আমাদের ফেনীর ছেলে স¤্রাটকে না কি এসবের জন্য দায়ী বলছে। তাকে বলছে ক্যাসিনো স¤্রাট! এটা কি সত্য? এবার আমি একটু দম নিয়া ভাবছি,চাচা কি স¤্রাটের প্রেমিক কিনা!
 প্রেমিক হলে সব সত্য নিতে পারবে না। প্রবীন মানুষ রেগে যেতে পারে। বললাম চাচা, টিভি খবরে কি কি,শুনেছেন? চাচা বলে, খবরে বলে সে নাকি জুয়াড়ীদের সম্রাট!  ক্যাসিনো ব্যবসায়ী।  পেপারেও লিখছে। তাকে ধরতে নাকি পুলিশ তৎপর। যে কোন সময় ধরবে। আবার কেউ বলে গোয়েন্দার কাছে সে আছে। আবার সে নাকি লাপাত্তা । খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। আবার শুনলাম সে অসুস্থ। নেতাদের  কাছে তদবিরও করছে সে বাঁচতে।  আসলে কি মা, স¤্রাট এগুলা কওে ? হে চাচা, করতেই পারে। বড় লোক মানুষ। চাচা এবার মাথা নিচু করে বিড়, বিড় করে। আবার বলে, এই অবৈধ কারবার নাকি তারেক রহমানে শুরু করেছিল দেশে আগে। হাওয়া ভবনে নাকি এমন কিছু কারবার ধরা পড়ছে। আমি এবার নিরুত্তর । চাচা দেখি জ্ঞানের পরিধি বেড়ে গেছে। আমি উঠলাম। যাবার আগে চাচা বললেন মা একটা পান খাও। পানে অনাভ্যস্ত আমি চাচার অনুরোধে মুখে নিলাম। বিদায় নেবার সময়ে চাচা দোয়া করে বললো আমাদের মেয়েরাও অনেক চালাক হয়েছে। অনেক কিছু জানে। মা গো, দোয়া করি। তোমার জামাই কি করে ? সব উত্তর দিয়ে দীঘির পশ্চিমে রিপোর্টাস ইউনিটির দিকে হাঁটছি ভক্ত সহ। পিছন ফিরে দেখি, চাচার সমবয়সী কয়েকটার জটলা। শোনা যাচ্ছে একটু ; চাচার বক্তব্য ক্যাসিনো নিয়ে।

লেখক- সাংবাদিক,সাহিত্যিক

05.10.2019 | 10:43 PM | সর্বমোট ৪১৮ বার পঠিত

ক্যাসিনোর এই দিন, সেই দিন" data-width="100%" data-numposts="5" data-colorscheme="light">

জাতীয়

রাজধানী

কেরানীগঞ্জে কারখানার আগুনে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১

কেরানীগঞ্জ উপজেলার চুনকুটিয়া এলাকায় অবস্থিত ‘প্রাইম পেট অ্যান্ড প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড’র কারখানার অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১১ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে।আজ...... বিস্তারিত

12.12.2019 | 01:10 PM


চট্টগ্রাম

চট্টগ্রাম-৮ আসনে আ. লীগের প্রার্থী মোছলেম উদ্দিন

চট্টগ্রাম-৮ আসনের উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন দলটির চট্টগ্রাম দক্ষিণের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন। সোমবার রাতে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে...... বিস্তারিত

09.12.2019 | 11:15 PM

ফেইসবুকে নিউজ ৭১ অনলাইন

ধর্ম

১০ জানুয়ারি থেকে শুরু হচ্ছে বিশ্ব ইজতেমা

শুরু হচ্ছে তাবলীগ জামাতের বিশ্ব ইজতেমা। আগামী ১০ জানুয়ারি থেকে গাজীপুরের টঙ্গী তুরাগ তীরে তিন দিন ব্যাপী শুরু হচেছ এ...... বিস্তারিত

05.12.2019 | 06:49 AM

বিনোদন

সর্বশেষ সংবাদ

সব পোস্ট

English News

সম্পাদকীয়

বিশেষ প্রতিবেদন

মানুষ মানুষের জন্য

আমরা শোকাহত

অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

অন্যরকম

ভিডিওতে ৭১এর মুক্তিযোদ্ধের ইতিহাস

ভিডিও সংবাদ