প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সেলফি তুললেন জো বাইডেন

প্রকাশিত: ৬:০০ অপরাহ্ণ , সেপ্টেম্বর ৯, ২০২৩

ভারতের নয়াদিল্লিতে জি২০ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে সেলফি তুলেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। এ সময় পাশে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেনকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

ভারতে জি-২০ সম্মেলন চলাকালে শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সেলফি তোলেন। ছবি: ফোকাস বাংলা

ভারতে জি-২০ সম্মেলন চলাকালে শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সেলফি তোলেন। 

দিল্লির ‘ভারত মন্ডপম’ কনভেনশন সেন্টারে শনিবার (৯ সেপ্টেম্বর) জি২০ শীর্ষ সম্মেলনের উদ্বোধনী অধিবেশন শেষে জো বাইডেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে ক্লাইমেট ভালনারেবল ফোরামের (সিভিএফ) থিম্যাটিক অ্যাম্বাসেডর সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে এই সেলফি তোলেন।

ভারতে জি-২০ সম্মেলন চলাকালে শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন সেলফি তোলেন। ছবি: ফোকাস বাংলা

এ দিন সকালে জি-২০ সম্মেলনে শেখ হাসিনা উপস্থিত হলে তাকে অভ্যর্থনা জানান ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দুপুরে জি২০ সম্মেলনে বক্তব্য দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভারতে জি-২০ সম্মেলন চলাকালে শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি: ফোকাস বাংলা

এর আগে গতকাল শুক্রবার ভারতীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর প্রশাসনিক বাসভবনে মোদির সঙ্গে বৈঠক করেন শেখ হাসিনা।

দ্বি-পক্ষীয় এই বৈঠকে শেখ হাসিনা এবং নরেন্দ্র মোদির মধ্যে বাংলাদেশের আসন্ন জাতীয় নির্বাচন সংক্রান্ত কোনো বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়নি বলে গণমাধ্যম ব্রিফিংয়ে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আসন্ন সাধারণ নির্বাচন এবং ইন্দো-প্যাসিফিক ইস্যু নিয়ে দুই প্রধানমন্ত্রীর মধ্যে কোনো আলোচনা হয়নি।

ভারতে জি-২০ সম্মেলন চলাকালে শেখ হাসিনা ও তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। ছবি: ফোকাস বাংলা

অপরদিকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, দ্বি-পক্ষীয় বৈঠকে শেখ হাসিনা ও নরেন্দ্র মোদি রাজনৈতিক ও নিরাপত্তা সহযোগিতা, সীমান্ত ব্যবস্থাপনা, বাণিজ্য ও সংযোগ, পানিসম্পদ, বিদ্যুৎ ও জ্বালানি, উন্নয়ন সহযোগিতা, সাংস্কৃতি এবং মানুষে-মানুষে বন্ধনসহ দ্বি-পক্ষীয় সহযোগিতার সার্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।

Loading