একসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সাথে সুসম্পর্ক রাখা চ্যালেঞ্জিং

প্রকাশিত: ৭:২০ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ১০, ২০২৩

একইসঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের সাথে সম্পর্ক ভালো রাখা চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার বলে মন্তব্য করে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, তবে আমরা সেটা ভালোভাবেই করে যাচ্ছি।মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) সকালে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অডিটোরিয়ামে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ছিন গ্যাংয়ে সঙ্গে বৈঠক প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমি মনে করি, আমাদের আলোচনা খুবই ফলপ্রসূ হয়েছে। সুখের বিষয় যে, চীন আমাদের উন্নয়নের মহাসড়কে সম্পৃক্ত থাকতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে সুনির্দিষ্ট কোনো আলোচনা হয়েছে কি না জানতে চাইলে তিনি বলেন, উনি বলেছেন মিয়ানমারে কিছু সমস্যা আছে। তাদের মধ্যে বেশ অসুবিধা আছে, সেই জন্য দীর্ঘায়িত হচ্ছে। তবে তিনিও আশাবাদী।

সম্প্রতি বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিদের বাংলাদেশ ভ্রমণ প্রসঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে ব্যবসা-বাণিজ্যের সুযোগ কেউ হাতছাড়া করতে চাচ্ছে না, যার কারণে বিভিন্ন দেশের প্রতিনিধিরা আসছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হয়েছে কি না সাংবাদিকরা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমাদের দেশটা গণতান্ত্রিক দেশ আর আপনারা দেখেছেন, গত ১৪ বছরে কত হাজার নির্বাচন হয়েছে এবং সুষ্ঠু হয়েছে। এই সেদিন একটি নির্বাচন হয়েছে এবং সুষ্ঠু হয়েছে। হ্যাঁ, অন্যরা আমাদের পরামর্শ দিতে পারে। এখন একটু দুঃখজনক নির্বাচনের সময় কেউ মারা যায়। আল্লাহর রহমত এবার কেউ মারা যায়নি। এগুলো আমাদের দূর করতে হবে, এটা কেউ সুপারিশ করে দূর করতে পারবে না।

বর্তমান সরকার সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করতে আন্তরিক বলে উল্লেখ্য করে আব্দুল মোমেন বলেন, শেখ হাসিনা গত ১৪ বছরে যে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছেন, সে জন্য আমাদের বিশ্বাস জনগণ আমাদের আবারও নির্বাচিত করবে তাদের নিজেদের ভবিষ্যতের জন্য।