ফটিকছড়ি থেকে স্কুলছাত্রীকে অপহরণ, পতেঙ্গায় ধরা ৩ জন

প্রকাশিত: ৫:১৭ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ৯, ২০২৩

চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি উপজেলার ভূজপুর এলাকা হতে ৮ম শ্রেণির এক ছাত্রীকে অপহরণের ঘটনায় তিন টিকটকারকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৭ চট্টগ্রাম। রবিবার (৮ জানুয়ারি) বিকেলে চট্টগ্রাম নগরীর পতেঙ্গা এলাকার একটি ভাড়া বাসা থেকে র‌্যাব তাদের গ্রেপ্তার করে। এ সময় অপহৃত ওই স্কুল ছাত্রীকে বাসা থেকে উদ্ধার করা হয়।

গ্রেপ্তার তিন টিকটকার হলো- সুনামগঞ্জ জেলার পাইকপাড়ার ইব্রাহীম আলীর পুত্র রুয়েল আহমেদ (২১), নেত্রকোনা জেলার মদন থানার মো শাহজাহানের পুত্র মো. অনিক (২০) ও সিলেট জেলার বিশ্বনাথ থানার মোকাদ্দেস মিয়ার পুত্র ইমন মিয়া (১৮)।

গ্রেপ্তার তিনজনই পতেঙ্গা পূর্ব কাটগড়ের অস্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে ভাড়া ঘরে বসবাস করতো।

র‌্যাব-৭ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, অপহৃত ভিকটিম ১২ বছর বয়সের এবং চট্টগ্রাম জেলার ভূজপুর থানাধীন একটি স্কুলে ৮ম শ্রেণীতে পড়ুয়া একজন ছাত্রী। প্রায় ৮ মাস পূর্বে আসামি রুয়েল আহমেদের সাথে টিকটকের মাধ্যমে ভিকটিমের পরিচয় হয়।

পরিচয়ের সূত্র ধরে রুয়েল আহমেদ বিভিন্ন সময় ভিকটিমকে মোবাইলের মাধ্যমে উত্যক্ত করত এবং প্রেমের প্রস্তাব দিত। গত ৪ জানুয়ারি সকালে ভিকটিম স্কুলে যাওয়ার পথে ভূজপুর থানাধীন হেয়াকো এলাকা হতে আসামি রুয়েল আহমেদ তার অপর ২জন সহযোগীসহ ভিকটিমকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে, ফুঁসলিয়ে জোরপূর্বক অপহরণ করে সিএনজি গাড়িযোগে চট্টগ্রামের পতেঙ্গা থানাধীন পূর্ব কাঠঘর এলাকায় অনিকের ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়।

পরবর্তীতে ভিকটিম স্কুল থেকে সময়মত বাড়ী ফিরে না আসায় ভিকটিমের মা-বাবা তাদের আত্মীয়-স্বজন সহ আশপাশের প্রতিবেশীর বাসায় খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। সারাদিন খোঁজাখুঁজি করে কোথাও না পেয়ে ভূজপুর থানাধীন দাঁতমারা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি জিডি করেন এবং বিষয়টি র‌্যাব-৭, চট্টগ্রামকে অবহিত করেন।

পরবর্তীতে রবিবার র‌্যাব গোপন তথ্যের ভিত্তিতে পতেঙ্গা থানাধীন প‚র্ব কাঠঘর এলাকার একটি ভাড়াঘর হতে ভিকটিমকে উদ্ধার করে এবং ঘটনার সাথে জড়িত তিন আসামিকে গেপ্তার করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা অপহরণের সাথে জড়িত থাকার সত্যতা স্বীকার করে।