চবি ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে ফের সংঘর্ষ, আহত ৪

প্রকাশিত: ৪:২২ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ৭, ২০২৩

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) শাটল ট্রেনের বগিভিত্তিক সংগঠন ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে আবারও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এসময় দু’গ্রুপের ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৪জন।

শুক্রবার (৬ জানুয়ারি) রাত সাড়ে ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সোহরাওয়ার্দী হলের মোড়ে এই ঘটনা ঘটে। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ও পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তাৎক্ষণিকভাবে আহতদের নাম পাওয়া যায়নি।

শাটল ট্রেনের বগিভিত্তিক ছাত্রলীগের গ্রুপ ‘সিক্সটি নাইন’ ও ‘ভার্সিটি এক্সপ্রেস’ (ভিএক্স) কর্মীরা এই সংঘাতে জড়ান। দু’টি গ্রুপই চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) সাবেক মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দিন অনুসারী হিসেবে ক্যাম্পাসে পরিচিত।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার ঘটনার জেরে আবারও এই সংঘর্ষে জড়ায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় সোহরাওয়ার্দী হল ও শাহজালাল হলের আশেপাশে কয়েকটি বাতি ভাঙচুর করা হয়। ফলে সড়ক অন্ধকার হয়ে যায়। এছাড়াও কয়েকটি দোকানের সাইনবোর্ড, টেবিল ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল সেন্টার সূত্রে জানা গেছে, সংঘর্ষের ঘটনায় কয়েকজন চিকিৎসা নিয়েছেন। সবাইকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে একজনের আঘাত গুরুতর হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (চমেকে) পাঠানো হয়েছে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও ভিএক্স গ্রুপের নেতা প্রদীপ চক্রবর্তী বলেন, ‘আবারও বিনা কারণে সিক্সটি নাইনের কর্মীরা আমাদের আক্রমণ করে। সে কারণে আমাদের কর্মীরা প্রতিহত করেছে। আমরা সিনিয়ররা বসে বিষয়টি সমাধান করব।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর অরুপ বড়ুয়া বলেন, ‘পরিস্থিতি এখন শান্ত হয়েছে। নেতাকর্মীদের হলে পাঠানো হয়েছে।’

এর আগে, বৃহস্পতিবার (৫ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম নগর থেকে ক্যাম্পাসের উদ্দেশে ছেড়ে আসা রাত সাড়ে ৮টার শাটল ট্রেনে সিক্সটি নাইনের এক কর্মী প্রতিপক্ষের মারধরের শিকার হন। এর জেরে রাত দুই গ্রুপের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। একপর্যায়ে রাত সাড়ে ৯টার দিকে দুই গ্রুপের মধ্যে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া হয়। এসময় ৩ জন আহত হয়েছিলেন।