বিশ্ববাজারে ১১ মাসের মধ্যে তেলের দাম সর্বনিম্ন

প্রকাশিত: ২:৫৬ অপরাহ্ণ , নভেম্বর ২৮, ২০২২

বিশ্বের শীর্ষ তেল আমদানিকারক চীনে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। আর দেশটির রাষ্ট্রপতি শি জিনপিংয়ের কঠোর ‘জিরো কোভিড নীতির’ বিরুদ্ধে দেশটিতে চলছে বিক্ষোভ। এ বিক্ষোভের মাথায় জ্বালানির চাহিদা কমার আশঙ্কায় বিশ্ববাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম গত ১১ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমেছে।

রয়টার্সের প্রকাশিত প্রতিবেদন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

চীনে চলমান বিক্ষোভে জ্বালানির চাহিদা কমে যেতে পারে। এমন আশঙ্কায় সোমবার (২৮ নভেম্বর) আন্তর্জাতিক বাজারে তেলের দাম ব্যারেলপ্রতি ২ ডলারেরও বেশি কমেছে।

এদিন ব্রেন্ট ক্রুডে দাম প্রতি ব্যারেল ২ দশমিক ১৬ ডলার বা ২ দশমিক ৬ শতাংশ কমে ৮১ দশমিক ৪৭ ডলারে ঠেকেছে। লেনদেনের শুরুর দিকে অপরিশোধিত তেলটির দাম ৮১ দশমিক ১৬ ডলার পর্যন্ত নেমে গিয়েছিল, যা গত ১১ জানুয়ারির পর সর্বনিম্ন।

এদিকে ইউএস ওয়েস্ট টেক্সাস ইন্টারমিডিয়েট (ডব্লিউটিআই) অপরিশোধিত তেলের দাম ২ দশমিক শূন্য ৮ ডলার বা ২ দশমিক ৭ শতাংশ কমে ৭৪ দশমিক ২০ ডলারে নেমেছে। লেনদেনের শুরুর দিকে এটির দাম ৭৩ দশমিক ৮২ ডলার পর্যন্ত কমেছিল। এটি ২০২১ সালের ২৭ ডিসেম্বরের পর সর্বনিম্ন।

এর আগে পরপর তিনটি সাপ্তাহিক পতনের পর গত সপ্তাহে তেলের উভয় বেঞ্চমার্কের দামই ১০ মাসের সর্বনিম্ন পর্যায়ে নামে। গত সপ্তাহে ব্রেন্ট ক্রুডের দাম ৪ দশমিক ৬ শতাংশ এবং ডব্লিউটিআই ক্রুডের দাম ৪ দশমিক ৭ শতাংশ কমে যায়।

নিসান সিকিউরিটিজের গবেষণার মহ্যব্যবস্থাপক হিরোইউকি কিকুকাওয়া বলেন, ‘চীনে কোভিড-১৯ আক্রান্তের হার বাড়ার কারণে জ্বালানির চাহিদা কমে যাওয়া নিয়ে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। এর ওপর আবার সাংহাইতে সরকারের কঠোর কোভিডবিষয়ক বিধিনিষেধের বিরুদ্ধে বিরল বিক্ষোভ চলছে। কাজেই দেশটিতে এমন রাজনৈতিক অনিশ্চয়তা দেখা দেয়ায় তেলের বাজারে প্রভাব পড়েছে।’