যুক্তরাজ্যে রেকর্ড তাপমাত্রা

প্রকাশিত: ১:১৫ অপরাহ্ণ , জুলাই ২০, ২০২২

রেকর্ড ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছালো যুক্তরাজ্যের তাপমাত্রা। বুধবার তা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা রয়েছে।

গরমে নাজেহাল যুক্তরাজ্য। সোমবার সেখানে গরমের জন্য জরুরি অবস্থা ঘোষণা হয়েছে। মঙ্গলবার কোনো কোনো এলাকার তাপমাত্রা ৩৮ থেকে ৪০ ডিগ্রির মধ্যে ঘোরাফেরা করেছে। বুধবার তা ৪৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত পৌঁছে যেতে পারে বলে আবহাওয়া দপ্তরের আশঙ্কা। অন্য বছর এসময় যুক্তরাজ্যের গড় তাপমাত্রা ২৫ ডিগ্রির মধ্যে থাকে।

আগুন জ্বলছে যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে। গরমে আগুন লেগে গেছে জঙ্গলে এবং ঘাসজমিতে। দমকলকর্মীরা দিকে দিকে ছড়িয়ে পড়েছেন আগুন নেভানোর কাজে। কিন্তু এখনো সর্বত্র আগুন নেভানো যায়নি। তারইমধ্যে দমকলকর্মীরা নাগরিকদের কাছে অনুরোধ করেছেন, এখন যেন কেউ বারবিকিউ করার চেষ্টা না করেন। ওয়েনিংটনে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বেশ কিছু বাড়ি।

দক্ষিণ ফ্রান্সের বিস্তৃত এলাকা জ্বলছে। দাবানল গ্রাস করছে বনভূমি, ঘরবাড়ি, মাঠ। বোর্ডো শহর গত ছয়দিন ধরে দাবানলের কবলে। ১৪ হাজার মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়া হয়েছে। অনেকে এখানে ছুটি কাটাতে এসেছিলেন।

দক্ষিণ ফ্রান্সের বিস্তৃত এলাকাও জ্বলছে। দাবানল গ্রাস করছে বনভূমি, ঘরবাড়ি, মাঠ। বোর্ডো শহর গত ছয়দিন ধরে দাবানলের কবলে। ১৪ হাজার মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নেয়া হয়েছে। অনেকে সেখানে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন।

সবচেয়ে কঠিন পরিস্থিতি লন্ডনে। গরমে হাঁসফাঁস অবস্থা সাধারণ মানুষের। অধিকাংশ বাড়িতে শীতাতপ নিয়ন্ত্রণের যন্ত্র নেই। পাখা চালানোর চলও নেই বিশেষ। ফলে তীব্র গরমে অসুস্থ হয়ে পড়ছেন মানুষ। সোমবারই স্কুল-কলেজ ছুটি দিয়েছে প্রশাসন। যথাসম্ভব বাড়িতে থেকে কাজ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। শুধু তা-ই নয়, গণপরিবহণও কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। রাস্তায় বাস কম, টিউবের সংখ্যা কম। লন্ডনের কাছে একটি বিমানবন্দর বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল। কারণ গরমে সেখানে রানওয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। লন্ডনে কয়েকটি বাড়িতেও আগুন লেগেছে।

আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, মঙ্গলবার দুপুরে লন্ডনের হিথরো বিমানবন্দরের কাছে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ধরা পড়েছে। ৪০ দশমিক দুই ডিগ্রি সেলসিয়াসে পৌঁছেছিল তাপমাত্রা। দুপুরের পর তা আরো বাড়ার আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছিল। শুধু তা-ই নয়, বুধবার তাপমাত্রা আরো বাড়তে পারে বলে জানা গেছে। হাওয়া অফিসের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তাদের পূর্বাভাস কোনো কোনো এলাকায় তাপমাত্রা ৪৩ ডিগ্রি পর্যন্ত পৌঁছাতে পারে।

হিথরো ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রা ছোঁয়ার আগে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল চার্লউডে, ৩৯ দশমিক এক ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে যুক্তরাজ্যের সর্বোচ্চ তাপমাত্রার রেকর্ড ছিল ৩৮ দশমিক সাত ডিগ্রি সেলসিয়াস। ২০১৯ সালে ওই তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল।

যুক্তরাজ্যের আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে আগামী দুই-একদিনের মধ্যে তাপমাত্রা ক্রমশ স্বাভাবিকের দিকে যাবে। তবে জাতিসংঘের আবহাওয়া সংক্রান্ত সংস্থা জানিয়েছে, আরো এক সপ্তাহ এমন পরিস্থিতি থাকবে। বস্তুত, ম্যাঞ্চেস্টারের দক্ষিণাংশ পর্যন্ত তাপমাত্রা এমনই থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে।

শুধু যুক্তরাজ্য নয়, গোটা ইউরোপই ভয়াবহ তাপপ্রবাহের কবলে। ফ্রান্স, পর্তুগাল, স্পেন, ক্রোয়েশিয়ায় তাপপ্রবাহ চলছে। দিকে দিকে দাবানল। জার্মানিতেও তাপমাত্রা ৪০ ডিগ্রি ছুঁয়েছে।

সূত্র: ডয়েচে ভেলে