এবারের হজ আয়োজন সফল

প্রকাশিত: ৯:২৭ অপরাহ্ণ , জুলাই ১২, ২০২২

মহামারি করোনাভাইরাসের ধাক্কা সামলে দুই বছর পর সারা বিশ্বের মুসলিমদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হলো এবারের হজ। প্রায় ১০ লাখ লোকের অংশগ্রহণে আয়োজিত এই হজকে সব দিক থেকে সফল বলে দাবি করছে সউদি আরব।

দেশটির হজ কর্তৃপক্ষ বলছে, এবারের হজে নিরাপত্তা ও সেবার কোনো ঘাটতি ছিল না। এছাড়া মহামারি করোনার প্রকোপ পুরোপুরি না থামলেও এর কোনো প্রভাব পড়েনি হজ কার্যক্রমে।

সোমবার (১১ জুলাই) আরব নিউজের প্রতিবেদনে বলা হয়, মক্কা অঞ্চলের গভর্নর এবং কেন্দ্রীয় হজ কমিটির সভাপতি প্রিন্স খালিদ আল-ফয়সাল এক বিবৃতিতে বলেন, নিরাপত্তা, সেবা ও স্বাস্থ্য খাতের দিক থেকে এ বছরের সফল হজের আয়োজন করে আমি আনন্দিত। এখন পর্যন্ত কোনো দুর্ঘটনা, সংক্রমণ কিংবা রোগের প্রাদুর্ভাবের খবর পাওয়া যায়নি।

নিরাপদ ও সহজ হজ নিশ্চিত করতে কাজ করা সরকারি কর্মকর্তাদের এই সফলতার কৃতিত্ব দিয়েছেন প্রিন্স খালিদ।

গত ৮ জুলাই সারা বিশ্বের ১০ লাখ মুসল্লির অংশগ্রহণে পালিত হয় পবিত্র হজ। এর আগে ৬ জুলাই পবিত্র হজের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। লাখ লাখ মুসলমান সৌদি আরবের পবিত্র নগরী মক্কায় কাবা তওয়াফের মধ্য দিয়ে হজ কার্যক্রম শুরু করেন। এবার করোনার বিধিনিষেধের কড়াকড়ি না থাকায় বেশির ভাগ অংশগ্রহণকারী মাস্ক ছাড়া হজে যোগ দেন।

গত দুই বছর করোনা মহামারির কারণে হজে কড়াকড়ি আরোপ করেছিল সৌদি সরকার। ২০২০ সালে সৌদি আরবে বাসকারী মাত্র এক হাজার মানুষ পেয়েছিল হজের অনুমতি। গত বছর সংক্রমণ কিছুটা কমে আসায় অনুমতি পেয়েছিলেন ৬০ হাজার মুসলিম। এবার বিশ্বের অন্তত ১০ লাখ মানুষ অংশ নেন হজে। এর মধ্যে বাংলাদেশ থেকে প্রায় ৬০ হাজার মানুষ এবারের হজে অংশ নেন। মোট অংশগ্রহণকারীর ৮৫ শতাংশই বিদেশি নাগরিক।