ধামরাইয়ের উপমহাদেশ খ্যাত ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা আজ থেকে শুরু

প্রকাশিত: ৮:০২ পূর্বাহ্ণ , জুলাই ১, ২০২২

আজ শুক্রবার ১ জুলাই থেকে শুরু হচ্ছে ধামরাই ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা উৎসব। প্রতিবছর রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হয় চন্দ্র আষাঢ়ের শুক্ল পক্ষের দ্বিতীয় তিথীতে। প্রথম রথযাত্রা পর ৮দিন পর আগামী ৯ জুলাই উল্টো রথযাত্রা অনুষ্ঠিত হবে।এই রথযাত্রা একেক অঞ্চলে একেক নামে পরিচিত। ঢাকার উপকণ্ঠে ধামরাইয়ের রথযাত্রা শ্রী শ্রী যশোমাধবের রথযাত্রা নামে উপমহাদেশে বিখ্যাত। ভারতের উড়িষ্যা রাজ্যের মহেশ্বের রথের মত শ্রী শ্রী যশোমাধবের রথমেলা বিখ্যাত। শ্রী শ্রী জগন্নাথ দেবের রথযাত্রার প্রচলন পরীর জগন্নাথ দেবের মন্দির থেকে। ভারতের পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে রথযাত্রার ব্যাপক প্রচলন রয়েছে। বাংলাদেশেও রথযাত্রা হিন্দুদের একটি পবিত্র উৎসব। আজ থেকে সাড়ে ৩শ’ বছরের ঐতিহ্যবাহী ধামরাইয়ের রথযাত্রা উৎসব ও মেলা। ধামরাইয়ের রথযাত্রা ও মেলা ইতিহাস প্রাচীন। এখানে রয়েছে মাধবমূর্তি। ধামরাইয়ে মাধবমূর্তিকে কেন্দ্র করে চলে আসছে ঐতিহ্যবাহী রথযাত্রা ও মেলা। বাংলা ১০৭৯ সালে থেকে এ অঞ্চলে রথযাত্রা ও মেলা উৎসব পালিত হয়ে আসছে। বাংলার পাল বংশের শেষ রাজা যশোপাল এ মাধবমূর্তি উদ্ধার করেন। যশোপাল একজন প্রজা বৎসল ও ধার্মিক রাজা ছিলেন। তিনি এ অঞ্চলে প্রজাসাধারনের জন্য উৎসবের সূচনা করেন।

এবারে ধামরাইয়ের রথযাত্রা উদ্বোধন করবেন প্রধান অতিথি হিসেবে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ড.শামসুল আলম। এছাড়া উপস্থিত থাকবেন, স্থানীয় এমপি বেনজির আহমদ,ভারতের হাই কমিশনার মান্যবর শ্রী বিক্রম কে দোরাইস্বামী,ঢাকা জেলা প্রশাসক শহীদুল ইসলাম,সাবেক এমপি এ.এম মালেক, পুলিশ সুপার মারুফ হোসেন সরদার , ধামরাই উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাদ্দস হোসেন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকি ,পৌর মেয়র গোলাম কবির মোল্লা , এসি ল্যান্ড ফারজানা আক্তার,ধামরাই থানার ওসি আতিকুর রহমান , যশোমাধব মন্দির পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক রাজীব প্রসাদ সাহা ও যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক নন্দ গোপাল সেন প্রমুখ । উদ্বোধন অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন মেজর জেনারেল (অব:) জীবন কানাই দাস। রথযাত্রা ২০দিন ব্যাপী মেলা বসবে । পৌরসভা সদর এলাকা জুড়ে বসে মেলা। এ মেলায় রয়েছে নাগর দোলা, কুটির শিল্প, কাসাঁ—পিতল শিল্প, মৃৎশিল্প, ছোটদের খেলার সামগ্রী, শংকর , রসগোলা ও মতিপালের প্রসিদ্ধ মিষ্টি সামগ্রী সমাহার এবং বিভিন্ন সামগ্রী দোকান বসেছে। ইতিমধ্যে বিভিন্ন স্থান থেকে দোকানীরা আসতে শুরু করছে।এছাড়া দুর দুরান্ত হি›ন্দু সম্প্রদায়ের লোক তাদের আত্নীয় স্বজনের বাড়ীতে রথযাত্রা দেখার জন্য আসতে শুরু করেছে। মাধব মন্দির পরিচালনা পরিষদের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক নন্দ গোপাল সেন জানিয়েছেন, যশোমাধবরের রথযাত্রার আয়োজন সকল প্রস্তুতি সম্পন্নের দিগে। ধামরাই ওসি আতিকুর রহমান জানান, রথযাত্রায় নিরাপওা জোরদার করার জন্য আইন শৃংখলা বাহিনী সর্বক্ষানী নজরদারী নিয়োজিত থাকবে। বিপুল সংখ্যক সাদা পোশাকে বিশেষ টিম,র‌্যাব, পুলিশও গোয়েন্দা সংস্থা মোতায়েন করা হবে। ধামরাই সদর রথযাত্রা ও মেলা অঙ্গনে নিরাপওা বলয় থাকবে। বিকেল ৪ টায় মাধব মন্দির থেকে মাধব বিগ্রহসহ অন্য বিগ্রহ গুলো নিয়ে এসে সারা বছর যেখানে রথটি থাকে সেই রথখোলায় রথের ওপর মূর্তিগুলো স্থাপন করা হবে। এরপর আনুষ্ঠানিকভাবে প্রদীপ জ্বালিয়ে ও শান্তির প্রতীক পায়রা উড়িয়ে প্রধান অতিথি রথযাত্রা উৎসবের উদ্বোধন করবেন। পরে তিনি পুরোহিত উত্তম গাঙ্গুলি হাতে প্রতীকী রশি প্রদান করবেন।বিকেল সাড়ে পাচঁটায় এরপর ভক্তরা পাটের রশি ধরে টেনে শ্রী শ্রী যশোমাধবকে তার কথিত শ্বশুরালয় যাত্রাবাড়ী মন্দিরে নিয়ে যাবে। এ সময় হাজার হাজার নারী—পুরুষ চিনি—কলা ছিটিয়ে যশোমাধবের প্রতি তাদের শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। এখানেই রথটি প্রতি বছরের মতো ৮দিন অবস্থান করবে। মাধব ও অন্য বিগ্রহগুলো রথ থেকে নামিয়ে ৮দিন পূজা করা হবে কথিত মাধবের শ্বশুরবাড়ি যাত্রাবাড়ি মন্দিরে।