নির্বাচন নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো বার্তা নেই

প্রকাশিত: ৮:০৯ অপরাহ্ণ , জুন ৮, ২০২২

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কোনো বার্তা নেই বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাজী হাবিবুল আউয়াল।

বুধবার (৮ জুন) আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাসের সৌজন্য সাক্ষাৎ শেষে সাংবাদিকদের একথা জানান সিইসি।

তিনি বলেন, “আমরা ফেয়ার নির্বাচন করার চেষ্টা করবো। আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আগের চেয়ে স্বচ্ছ হবে বলে মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাসকে জানিয়েছি।”

ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাস বলেছেন, “আগামী সংসদ নির্বাচনে কে বিজয়ী হবে তা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের কোনো মাথাব্যথা নেই। ”

নির্বাচন প্রক্রিয়ায় কমিশনের গুরুত্ব তুলে ধরে মার্কিন রাষ্ট্রদূত বলেন, “অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনে শুধু ইসি নয়, সরকার, রাজনৈতিক দল, গণমাধ্যম ও জনগণের ভূমিকা রয়েছে। ”

কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, ‘প্রথমত বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে উনাদের কোনও বার্তা নেই। এটা ছিল সৌজন্য সাক্ষাৎ। তিনি আমাকে স্বাগত জানিয়েছেন নতুন সিইসি হিসেবে। সকল ক্ষেত্রে আমার সাফল্য কামনা করেছেন। তিনি এবং তার সরকারের তরফ থেকে কোনও সহযোগিতার প্রয়োজন হলে করবেন বলে জানিয়েছেন, এটা একটা সৌজন্যতা।’

তিনি আরও বলেন, আগামী নির্বাচন সম্পর্কে আসলে উনি তেমন কিছু আলোচনা করেননি। আমি বলেছি আমেরিকার মতো আমাদের নির্বাচন এত স্মুথ নয়। নির্বাচনটা ফেয়ার করার চেষ্টা করবো। আগের চেয়ে অনেক স্বচ্ছ নির্বাচন হবে। সম্ভব হলে ভোটিং কেন্দ্রগুলোতে সিসি ক্যামেরা দেব।

রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে সংলাপে অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন নিশ্চিত করার পথ বের হয়ে আসবে। লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড ও ভোটের পরিবেশ নিশ্চিতে কাজ করবে ইসি। এ বিষয়ে সরকার কমিশনকে সহায়তা করবে বলে আশা প্রকাশ করেন সিইসি।